ভারতে এক বছরে ক্রিপ্টোকারেন্সিতে বিনিয়োগ বেড়েছে সাড়ে ৭ গুণ!

ভারতে এক বছরে ক্রিপ্টোকারেন্সিতে বিনিয়োগ বেড়েছে সাড়ে ৭ গুণ!
প্রতীকী ছবি

প্রতিবেশি দেশ ভারতের কর্তৃপক্ষ ক্রিপ্টোকারেন্সির লেনদন এবং এ ধরনের ব্যবসার সাথে যুক্ত প্রতিষ্ঠানের ওপর কর আরোপের চিন্তা-ভাবনা করছে। অর্থনীতি বিষয়ক গণমাধ্যম ইকনোমিক টাইমস-এর ওয়েবসাইটের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

গতকাল সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) প্রকাশিত ওই প্রতিবেদন বলছে, ভারত সরকার মনে করে যে কোনো কর্মকাণ্ড যা থেকে আয় হয় তার উপরই কর আরোপ করা উচিৎ। তবে আশ্চর্যজনক বিষয় হলো দেশটির কর বিভাগ ক্রিপ্টোকারেন্সির ওপর করারোপের সিদ্ধান্তকে সমর্থন করলেও গণমাধ্যমের প্রতিবেদন বলছে এর অর্থ এই নয় যে এ ধরনের সম্পদকে বৈধ হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হবে।

ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাবেক গভর্নর রামা সুব্রামানিয়াম গান্ধী গত সপ্তাহে বলেন, ক্রিপ্টোকারেন্সিকে ভারতে অবশ্যই সম্পদ বা পণ্য হিসেবে গণ্য করা উচিৎ এবং বিদ্যমান আইনে তা নিয়ন্ত্রণ করা যেতে পারে।

কর সংক্রান্ত বিষয় বিবেচনা করে নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষের অবশ্যই জানতে হবে কোন ব্যক্তির ক্রিপ্টোকারেন্সিতে কত অর্থ বিনিয়োগ আছে। এবং সেই তথ্য বিভিন্ন সংস্থার সাথে বিনিময়ও করা উচিৎ।

ফাইন্ডার নামের এক বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠানের সাম্প্রতিক এক জরিপের তথ্যমতে, ভারতে সবচেয়ে জনপ্রিয় ক্রিপ্টোকারেন্সি হলো ওন, তারপর রিপল, ইথারিয়াম এবং বিটকয়েন। ডিজিটাল সম্পদে বিনিয়োগের ওপর ভারতীয় সরকারের অত্যন্ত কড়া বিধি নিষেধ থাকলেও দেশটিতে ক্রিপ্টোকারেন্সিতে বিনিয়োগের পরিমাণ রকেট গতিতে বাড়ছে।

বিভিন্ন সূত্রে প্রাপ্ত তথ্য বলছে, ২০২০ সালের এপ্রিলে যেখানে বিনিয়োগ ছিল ৯২ কোটি ৩০ লাখ ডলার মূল্যের ক্রিপ্টোকারেন্সির, চলতি বছরের মে মাসে তা দাঁড়িয়েছে ৬৬০ কোটি ডলার।

সংবাদ সূত্রঃ ইকনোমিক টাইমস