ক্যান্সার নয়, অতিরিক্ত মাদক সেবনেই পুনম পান্ডের মৃত্যু

সংগৃহীত ছবি

ভারতের আলোচিত মডেল-অভিনেত্রী পুনম পাণ্ডে মারা গেছেন। শুক্রবার (২ ফেব্রুয়ারি) অভিনেত্রীর মৃত্যুর খবরটি শোনার পর থেকেই উত্তাল নেটদুনিয়া।

এদিন দুপুরে পুনম পাণ্ডের অফিসিয়াল ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে একটি পোস্ট করে অভিনেত্রীর মৃত্যুর খবরটি নিশ্চিত করা হয়। এতে বলা হয়, সার্ভিকাল ক্যানসারে (জরায়ু মুখের ক্যানসার) মৃত্যু হয়েছে পুনমের।

কিন্তু ভারতীয় একটি গণমাধ্যমের দাবি, জরায়ু মুখের ক্যানসারে নয়, মাত্রাতিরিক্ত মাদকদ্রব্য সেবনের কারণেই মৃত্যু হয়েছে নীল সিনেমার তারকা পুনমের।

সেই পোস্টের কিছুক্ষণ পর পুনমের সহকারীও তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেন। কিন্তু এরপর অভিনেত্রীর মৃত্যু সংক্রান্ত আর কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। এদিকে পুনমের মৃত্যুর খবরটি আদৌ কতটা সত্য, সে নিয়েও দেখা দিয়েছে সংশয়।

এর মাঝেই শুক্রবার সন্ধ্যায় ভারতীয় গণমাধ্যম ‘জুম টিভি’ দাবি করে, জরায়ু মুখের ক্যানসারে নয়, মাত্রাতিরিক্ত মাদকদ্রব্য সেবনের কারণেই মৃত্যু হয়েছে পুনমের। তবে কী ধরনের মাদক সেবন করেছিলেন অভিনেত্রী, সেটা এখনও জানা যায়নি।

১৯৯১ সালের ১১ মার্চ ভারতের কানপুরে জন্মগ্রহণ করেন পুনম। ভীষণ রক্ষণশীল ব্রাহ্মণ পরিবারের মেয়ে। এমনকি ইন্ডাস্ট্রিতে পূর্ব পরিচিতি কেউও ছিল না তার। পুনমের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে তার পরিবারের সঙ্গে কোনোভাবেই যোগাযোগ করা যাচ্ছে না। ফলে বিষয়টি নিয়ে বাড়ছে ধোঁয়াশা।

মডেলিং দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করেন তিনি। ২০১৩ সালে ‘নাশা’ সিনেমার মাধ্যমে বলিউডে পা রাখেন এই অভিনেত্রী। তবে খুব একটা প্রভাব ফেলতে পারেননি বড় পর্দায়। ধীরে ধীরে নীল সিনেমার জগতে পরিচিতি বাড়তে থাকে তার। শেষে প্রাপ্ত বয়স্কদের সিনেমার নায়িকা হয়েই রয়ে গেলেন পুনম।