সাহেদের প্রধান সহযোগী শিবলী গ্রেফতার

tarek

কোনো নমুনা পরীক্ষা ছাড়াই প্রাণঘাতী করোনা সংক্রান্ত জাল সনদ প্রদানসহ বিভিন্ন অপরাধের অভিযোগ উঠা রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদের প্রধান সহযোগী তারেক শিবলীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। বুধবার মধ্যেরাতে রাজধানীর নাখালপাড়া থেকে জনসংযোগ কর্মকর্তা তারেক শিবলীকে গ্রেফতার করা হয়।

র‌্যাবের গোয়ান্দা ইউনিটের প্রধান সারওয়ার বিন কাশেম জানান, রিজেন্ট হাসপাতালের অনিয়ম ও প্রতারণার ঘটনায় সাহেদের অন্যতম সহযোগী তরিকুল ইসলাম ওরফে তারেক শিবলীকে আমরা আটক করেছি। তার কাছে থেকে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পেয়েছি সাহেদ সম্পর্কে। পাশাপাশি সাহেদের বিদেশযাত্রা ঠেকাতে ইমিগ্রেশনে পুলিশকে চিঠি দিয়েছি। র‌্যাব জানিয়েছে, পলাতক সাহেদকে ধরতে এরই মধ্যে র‌্যাবের একাধিক টিম মাঠে নেমেছে। আইনশৃংখলা বাহিনীর অন্যান্য সংস্থাও কাজ করছে।

এর আগে চুক্তি ভঙ্গ করে করোনা রোগীদের থেকে বিল আদায়, টেস্ট না করে ভুয়া সনদ দেয়াসহ নানা অভিযোগ উঠে রিজেন্ট হাসপাতালের বিরুদ্ধে।

নানা অনিয়ম, প্রতারণা, সরকারের সঙ্গে চুক্তি ভঙ্গ ও করোনা পরীক্ষার ভুয়া রিপোর্ট দেয়ার অভিযোগ উঠে রিজেন্ট হাসপাতালের বিরুদ্ধে। এসব অভিযোগে হাসপাতালটির প্রধান কার্যালয়, উত্তরা ও মিরপুর শাখা সিলগালা করে দিয়েছে র‌্যাব।

পরে প্রতারণার অভিযোগে রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান সাহেদকে এক নম্বর আসামি করে ১৭ জনের নামে মামলা করা হয়। সাহেদসহ নয় জন পলাতক রয়েছেন।