অমিত শাহ’র কটাক্ষের কড়া জবাব পররাষ্ট্রমন্ত্রীর, সমালোচনায় ভারতীয় গণমাধ্যম

ড. একে আব্দুল মোমেন ও অমিত শাহ - পুরানো ছবি

ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির সাবেক সভাপতি ও ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বাংলাদেশকে কটাক্ষ করে বক্তব্য দিয়েছিলেন। অমিত শাহ বলেছিলেন,”বাংলাদেশের সীমান্ত এলাকার গরিব মানুষ এখনও খেতে পাচ্ছে না। সে কারণেই তারা ভারতে অনুপ্রবেশ করছে।”

বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন অমিত শাহ’র এমন মন্তব্যের উপযুক্ত জবাব দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, “ভারতের ৫০ শতাংশের মানুষের ভালো কোনও বাথরুম নেই। আর আমাদের ৯০ শতাংশ লোকই ভালো বাথরুম ব্যবহার করেন। আমার দেশের শিক্ষিত লোকের চাকরির অভাব আছে। তবে অশিক্ষিত লোকের চাকরির অভাব নেই। আর ভারতের লক্ষাধিক লোক বাংলাদেশে চাকরি করে। তাই আমাদের ভারতে যাওয়ার কোনো প্রয়োজন নেই।”

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, “বাংলাদেশ নিয়ে তার জ্ঞান সীমিত। আমাদের দেশে এখন কেউ না খেয়ে মরে না। এখানে কোনও মঙ্গাও নেই। সীমিত জ্ঞানের কারণেই অমিত শাহ ওই কথা বলেছেন।”

এদিকে, ভারতের কিছু সংবাদ মাধ্যম পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এই বক্তব্যকে কটাক্ষ হিসেবে নিয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দেশটির কয়েকটি সংবাদ মাধ্যমে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ওই বক্তব্যের সমালোচনা করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে ভারতী গণমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানিয়েছে, বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে কটাক্ষ করেছেন। এছাড়াও বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলাদেশের ভারতের চেয়ে এগিয়ে থাকা নিয়ে মন্ত্রীর বক্তব্যকেও সামনে নিয়ে এসেছে তারা।

অমিত শাহ’র মন্তব্যের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন গত বুধবার বলেন “তার (অমিত শাহ) এই ধরনের মন্তব্য অগ্রহণযোগ্য, বিশেষত যখন বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সম্পর্ক অনেক গভীর। এ জাতীয় মন্তব্য দুদেশের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি তৈরি করে।”