স্বল্প সময়ে চীনের টিকা আসার ব্যাপারে আশাবাদী বাংলাদেশঃ স্বাস্থ্য সচিব

Lokman Hossain Mia

স্বাস্থ্য সচিব লোকমান হোসেন মিয়া জানিয়েছেন যে, চীনের তৈরি করোনাভাইরাসের টিকা সিনোভ্যাকের জরুরি অনুমোদন দেওয়া হয়। ফলে চীন থেকে স্বল্পতম সময়ের মধ্যে এই টিকা আসার ব্যাপারে আশাবাদী বাংলাদেশ।

আজ বুধবার (৫ মে) স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা জানান তিনি।

এর আগে ২৯ এপ্রিল রাশিয়ার পর দেশে চীনের টিকা সিনোভ্যাকের জরুরি অনুমোদন দেন ওষুধ প্রশাসন অধিদফতর। ওষুধ প্রশাসন অধিদফতরের মহাপরিচালক জেনারেল মো. মাহবুবুর রহমান জানান আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে চীনের দেওয়া উপহারের ৫ লাখ ডোজ টিকা আসবে। পরবর্তীতে দুই সপ্তাহের মধ্যে এই টিকার প্রয়োগ শুরু হবে।

ওইদিন মহাপরিচালক বলেন, এ মাসের ২৭ তারিখে আমরা স্পুটনিক-ফাইভ জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছি। আর আজকে আমরা চীনের সিনোভ্যাক টিকার জরুরি অনুমোদন দিয়েছি।

ওই একদিন স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, লকডাউন করোনা থেকে রক্ষা পওয়ার দীর্ঘমেয়াদি সমাধান হতে পারে না; এর জন্য সবাইকে ভ্যাকসিন নেওয়া জরুরি।

তিনি বলেন, আপনারা জানেন আমরা ভ্যাকসিনে দেওয়ার চেষ্টা করেছি। পরে ভ্যাকসিনটা আমরা মাঝপথে গিয়ে আর পাচ্ছি না আমরা। আমাদের সব টাকা-পয়সা দেওয়া আছে কিন্তু ভ্যাকসিনটা আমরা পাচ্ছি না, এটা আপনারা সবাই জানেন। এখন আমরা রাশিয়া ও চায়নার ভ্যাকসিন অনুমোদন দিয়েছি যেন আমরা ভ্যাকসিন কার্যক্রম চালিয়ে যেতে পারি।