দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর সবচেয়ে খারাপ সংকটে বিশ্ব: জাতিসংঘ মহাসচিব

জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস। ছবি: আল–জাজিরা

চলমান করোনা ভাইরাস মহামারি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর পৃথিবীর জন্য সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ বলে হুঁশিয়ারি জানিয়েছেন জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস।

বুধবার (১ এপ্রিল) আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ তথ্য জানায়।

জাতিসংঘের মহাসচিব বলেন, করোনা মহামারির কারণে বিশ্বে এমন অর্থনৈতিক মন্দা দেখা দেবে, সম্ভবত সাম্প্রতিক অতীতের কোনো ঘটনাই যার সমতুল্য নয়।

এ মহামারির আর্থসামাজিক প্রভাব নিয়ে এক প্রতিবেদন প্রকাশকালে এক বিবৃতিতে তিনি এ কথা বলেন।

বিশ্বজুড়ে নিশ্চিতভাবে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৮ লাখ ৬০ হাজার এবং তাদের মধ্যে মারা গেছেন ৪২ হাজার জন। যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত মানুষের সংখ্যা চীনকে ছাড়িয়ে গেছে।

গুতেরেস বলেন, ইউরোপে করোনার সংক্রমণে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলো এক দিনে তাদের সর্বোচ্চসংখ্যক মৃত্যুর খবর দিয়েছে।

আল–জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, গতকাল মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রে এক দিনে ৮০০ জনের মৃত্যু হয়েছে, যা দেশটিতে মোট মৃত মানুষের সংখ্যা ৩ হাজার ৭০০–তে পৌঁছে দিয়েছে। সবচেয়ে বেশি মানুষ আক্রান্ত হওয়ার ঘটনাও এখন যুক্তরাষ্ট্রে। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এর উৎপত্তিস্থল চীনে মারা গেছে ১ হাজার ২৮২ জন।

স্পেন, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স ও ইতালি মহামারি শুরুর পর থেকে এক দিনে তাদের সর্বোচ্চ মৃত্যুর ঘটনা জানিয়েছে। ইতালিতে এ পর্যন্ত ১২ হাজার ৪২৮ জন মারা গেছে। বিশ্বের সবচেয়ে বেশি মৃত্যুর ঘটনা ইতালিতে।

জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির বরাতে আল–জাজিরা জানিয়েছে, বিশ্বজুড়ে ৮ লাখ ৬০ হাজার মানুষের করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এখন পর্যন্ত ১ লাখ ৭৮ হাজার ব্যক্তি করোনামুক্ত হয়েছেন। করোনার আক্রান্ত হয়ে ৪২ হাজার মানুষ মারা গেছেন।