মহামারী করোনায় দূরত্ব বজায় রাখতে ‘ছাতা মডেল’!

umbrella

মহামারী করোনাভাইরাস মোকাবেলায় সারা ভারত তো বটেই আন্তর্জাতিক নানা মহলেও উচ্চারিত হচ্ছে কেরালার নাম। এবার দূরত্বের নীতি মানতে কেরালায় চালু হয়েছে অভিনব ‘ছাতা মডেল’!

করোনাভাইরাস সংক্রমণের আশঙ্কা ঠেকাতে সব জায়গায় একে অপরের সঙ্গে দূরত্ব রাখা জরুরি। বিষয়টি বিবেচনা করে কেরালার আলপ্পুঝা জেলার একটি গ্রাম পঞ্চায়েত নিয়ম চালু করেছে- বাইরে বের হলে ছাতা সঙ্গে রাখা আবশ্যক।

সেখানে রোদ থাকুক কিংবা বৃষ্টি- ছাতা সবার জন্য প্রযোজ্য। পঞ্চায়েত নেতাদের কথা- বাইরে বেরিয়ে ছাতা খুলে রাখলে তার বদৌলতে একে অপরের সঙ্গে গা ঘেঁষাঘেঁষি এড়ানো যাবে! রাজ্য সরকার ইঙ্গিত দিচ্ছে, এই নীতি কাজে দিলে বাকি রাজ্যে আরো বড় আকারে রাস্তায় হাঁটার কথা ভাবা সম্ভব।

আলপ্পুঝার তনীরমুক্কম গ্রাম পঞ্চায়েত এই ছাতা-নীতি চালু করেছে। সাধারণ মানুষের নিরাপত্তার স্বার্থে সরকারি সহায়তায় অল্প দামে ছাতা দেওয়ার ব্যবস্থাও করা হয়েছে।

কেরালার অর্থমন্ত্রী টমাস আইজ্যাক আলপ্পুঝা কেন্দ্র ( জেলার সদর শহর) থেকেই নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি জানান, ছাতার জন্য আপাতত সরকারি ভর্তুকির ব্যবস্থা থাকবে।

সিপিএমের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আইজ্যাক বলেন, এটা বেশ ভালো ভাবনা! নিয়মটা হলো- একজনের ছাতার সঙ্গে অন্য জনের ছাতার সংস্পর্শ চলবে না। একে অপরকে স্পর্শ না করে দুই ছাতা পাশাপাশি খুলে রাখলে দু’জনের মধ্যে এক মিটার ব্যবধান রাখা সম্ভব। এতে দূরত্ব-নীতি বজায় রাখা যাবে।