করোনাঃ পালানোর চেষ্টা করলে রোগীকে গুলি করে হত্যার অনুমতি

Nepal

করোনা আতঙ্কে আতঙ্কিত গোটা বিশ্ব। মহামারির ক্রমবর্ধমান বিস্তারের মাঝে হাসপাতাল থেকে পালানোর চেষ্টা করলে করোনা রোগীকে গুলি করে হত্যার অনুমতি দিয়েছে নেপাল। নেপালের ইংরেজি দৈনিক কাঠমান্ডু পোস্ট শুক্রবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কোভিড-১৯ মহামারি দেশজুড়ে বাড়তে থাকা প্রত্যেকেই যখন চিন্তিত তখন কর্তৃপক্ষ এটি মোকাবিলায় কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার পথে হাঁটল। দেশটির পারসা জেলা ক্রাইসিস ম্যানেজমেন্ট সেন্টার আইসোলেশন ওয়ার্ড থেকে কোনও সংক্রমিত রোগী পালানোর চেষ্টা করলে তাকে গুলি করে হত্যা করতে নিরাপত্তা বাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছে।

তবে স্থানীয় সরকারের এই সিদ্ধান্ত নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়েছে। দেশটির মানবাধিকার কর্মীরা সরকারের এই নির্দেশকে বিপজ্জনক উল্লেখ করে এর মাধ্যমে মানুষের মৌলিক মানবাধিকারের লঙ্ঘিত হবে বলে মন্তব্য করেছেন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পারশা জেলার প্রধান কর্মকর্তা বিষ্ণু কুমার কারকি নিরাপত্তা বাহিনীর কর্মকর্তাদেরকে আইসোলেশন ওয়ার্ডে মোতায়েনের নির্দেশ দেন।

তিনি বলেন, হাসপাতালে আইসোলেশনে থাকা রোগীরা পালানোর চেষ্টা করলে নিরাপত্তা বাহিনী তাকে গুলি করতে পারবে।

জেলার সহকারী প্রধান কর্মকর্তা ললিত কুমার বাসনেত বলেন, হাসপাতাল এবং আইসোলেশন ওয়ার্ড থেকে রোগীর পলায়নে বাধাদানে নিরাপত্তা কর্মীদের বলপ্রয়োগের অনুমতি দেয়া হয়েছে। এমনকি প্রয়োজনে তারা গুলিও ছুড়তে পারবেন।

বুধবার দেশটির নারায়নি হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ড থেকে দু’জন করোনা পজিটিভ রোগী পালিয়ে যান। হাসপাতাল থেকে রোগীর এই পালিয়ে যাওয়ার ঘটনার পর নিরাপত্তাবাহিনীকে বলপ্রয়োগের অনুমতি দেয়া হলো। যদিও পরবর্তীতে ওই দুই রোগীকে আটক করে আবারও হাসপাতালে নিয়ে আসে পুলিশ।

নেপালে এখন পর্যন্ত ২৫০ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মারা যাননি একজনও। তবে চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩৫ জন।