উত্তাল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র: লাইভে রিপোর্টারকে গুলি করতে যাচ্ছিল পুলিশ!

United States

মার্কিন টিভি নেটওয়ার্কে প্রচারিত ফুটেজে দেখা গেছে, সরাসরি সম্প্রচারের (লাইভ অন এয়ার) সময় পুলিশ কর্মকর্তা একজন প্রতিবেদক এবং তার ক্যামেরাম্যানকে ‘টার্গেট’ করছেন। ফুটেজে দেখা গেছে, এই জুটিকে (প্রতিবেদক এবং ক্যামেরাম্যান) বারবার রাবার বুলেটের দ্বারা আঘাত করা হয়েছিল। খবর নিউজিল্যান্ড হেরাল্ড এর।

একজন অফিসার নিজের অস্ত্রটি সরাসরি ক্যামেরার সামনে প্রদর্শন করেন। কেনটাকির লুইসভিলে পুলিশি বর্বরতার বিরুদ্ধে বিক্ষোভের সময় ওয়েভ-৩ নিউজের প্রতিবেদক ক্যাটলিন রাস্ট সরাসরি খবর প্রচার করছিলেন। সে সময় (পুলিশ) কর্মকর্তারা তাকে এবং ক্যামেরাম্যানকে টার্গেট করতে সেখানে উপস্থিত হন।

সে সময় প্রতিবেদক ক্যাটলিন রাস্ট স্টুডিওতে থাকা অ্যাংকরদের বলেছিলেন, আমরা লাইনের পিছনে আছি।তখন অ্যাংকরদের একজন তাকে বলেন, এগিয়ে যেতে থাকুন এবং আপনি যেখানে যেতে হবে সেখানে যান। কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই রাস্টকে চিৎকার করতে শোনা যায়। সে সময় তাকে বলতে শোনা যায়, আমি গুলিবিদ্ধ হয়েছি! রাবার বুলেট, রাবার বুলেট, এটি মরিচ গুলি, আমি ঠিক আছি।

সে সময় অ্যাংকরদের একজন তাকে জিজ্ঞাসা করেন, কারা তাকে টার্গেট করছে? তিনি (রাস্ট) বলেন, আমাদের সাথে! সরাসরি আমাদের দিকে! তখন একজন অফিসার তার অস্ত্র তাক করেছিলেন এবং সরাসরি ক্যামেরায় দেখিয়েছিলেন। তখন অ্যাংকর বলেন, তারা এমনটি করছে কেন? তারা কি জানে না স্পষ্টতই তাদেরকে ক্যামেরায় দেখা যাচ্ছে।

রাস্ট এবং তার ক্যামেরাম্যান পুলিশের কাছ থেকে পিছু হটে যাওয়ার পরে তিনি ব্যাখ্যা করেন যে, কর্মকর্তারা তাকে আরও দূরে সরে যা্ওয়ার আদেশ দিচ্ছিলেন। তিনি বলেন, আমি অনুমান করি আমরা তাদের লাইনের পিছনে ছিলাম। সে সময় একজন অ্যাঙ্কর বলেন, আমরা জেমসের ক্যামেরার দিকে নজর রাখছি। যেহেতু অফিসার সরাসরি জেমসের ক্যামেরায় লক্ষ্য করছেন, তাই শট দেওয়ার মতো অবস্থা নেই।

জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর প্রেক্ষিতে মিনেপলিসে বিক্ষোভের লাইভ প্রচার চলাকালে সিএনএন রিপোর্টার ওমর জিমনেজকে গ্রেপ্তার করা হয়। সে সময় একজন প্রযোজক এবং ক্যামেরা অপারেটরকে হাতকড়াও লাগানো হয়েছিল।