মিয়ানমারে সামরিক সরকার বিরোধী বিক্ষোভে ২০ শিশুর মৃত্যু

miyanmar

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার রাষ্ট্র মিয়ানমার সেনাবাহিনীর হাতে এবার মারা গেল সাত বছর বয়সী এক শিশু। এ নিয়ে গত ফেব্রুয়ারি থেকে দেশটিতে সামরিক সরকার বিরোধী বিক্ষোভে অন্তত ২০ শিশুর মৃত্যু হলো। এদিকে, দেশটির গণতন্ত্রপন্থী নেত্রী অং সান সু চিকে নিজের হাতে টাকা ও সোনা দেয়ার অভিযোগ এনেছেন তার সাবেক এক রাজনৈতিক সহকর্মী।

এক সন্তান হারা মায়ের আর্তনাদে ভারি মিয়ানমারের মান্দ্যালে শহরের আকাশ। মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) জান্তা বিরোধী বিক্ষোভে অংশ নিয়ে লাশ হয়ে বাড়ি ফিরতে হয়েছে ছোট্ট শিশুটিকে। আন্তর্জাতিক শিশু সংস্থা সেভ দ্য চিলড্রেন বলছে দেশটিতে চলমান বিক্ষোভে হতাহতদের মধ্যে বেশ কয়েকজন শিশু রয়েছে।

এদিনও বিভিন্ন জায়গায় সামরিক সরকার বিরোধী বিক্ষোভ হয়। মিয়ানমারের পাশাপাশি অন্যান্য দেশেও বিক্ষোভ হয়।

এদিন এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে জান্তা সরকার। এতে ভার্চুয়ালি বক্তব্য রাখেন দেশটির ইয়াংগুন প্রদেশের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ফিয়ো মিন থেইন। মিয়ানমারের গণতন্ত্রপন্থী নেত্রী অং সান সু চির বিরুদ্ধে তিনি অভিযোগ করে বলেন, নিজ হাতে সু চিকে মার্কিন ডলার ও সোনা দিয়েছেন তিনি।

ফিয়ো মিন থেইন বলেন, ‘সু চির বাসায় আমি কয়েকবার গেছি। আমার নিজের কাজ করার জন্য তাকে বিভিন্ন সময় উপহার দিয়েছি আমি। সব মিলিয়ে ছয় লাখ মার্কিন ডলার ও ২৫ পাউন্ডের বেশি সোনা তার হাতে দেয়া হয়েছে।’

ওই সংবাদ সম্মেলনে মিয়ানমার জুড়ে চলমান অগ্নিসংযোগ ও সহিংসতার জন্য বিক্ষোভকারীদেরই দোষ দেয় জান্তা সরকার। একইসঙ্গে সহিংসতায় হতাহতদের পরিবারের প্রতি দুঃখ প্রকাশ করা হয়।