মসজিদ আল-হারামের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো নারী নিরাপত্তা-রক্ষী

​মসজিদ আল-হারামে দায়িত্ব পালনরত নারী নিরাপত্তা-রক্ষী - টুইটার সংগৃহীত ছবি

সৌদি আরব এবার মক্কার মসজিদ আল-হারামে (মক্কার গ্রান্ড মসজিদ) নারী নিরাপত্তা-রক্ষী নিয়োগ দিয়েছে। মসজিদ আল-হারামের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো নিয়োগ দেয়া হলো নারী নিরাপত্তা-রক্ষী।

টুইটার সংগৃহীত ছবি

সৌদি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মক্কার মসজিদ আল-হারামের চত্ত্বরে নারী নিরাপত্তা-রক্ষী কর্মকর্তাদের টহল দেয়ার ছবিও সম্প্রতি প্রকাশ করেছে। এ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান আল সৌদের ২০৩০ সালের ভিশন অনুসারে বিভিন্ন সংস্কার কার্যক্রমের আওতায়।

নারী নিরাপত্তা-রক্ষী কর্মকর্তাদের টহল দেয়ার ছবি টুইটারে প্রকাশ করে সৌদি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, “এখন থেকে হজ আর ওমরাহর নিরাপত্তা ব্যবস্থায় নারী নিরাপত্তা-রক্ষীরাও অংশ নেবেন।”

বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও নিউজসাইটে নারী নিরাপত্তা-রক্ষীদের নিয়োগের এ ছবিগুলো ব্যাপকভাবে শেয়ার করা হয়েছে। এমনকি মার্কিন সংবাদ সংস্থা সিএনএনও প্রকাশ করেছে এ ছবি।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারকারীরাও প্রশংসা করেছেন মক্কার মসজিদ আল-হারামের নিরাপত্তায় নারী নিরাপত্তা-রক্ষী কর্মকর্তাদের অংশগ্রহণের। বিভিন্ন মানবাধিকারকর্মী ও বিশ্লেষকরা রিটুইট করেছেন এবং বিভিন্ন মন্তব্যও করেছেন এ ছবিগুলো নিয়ে।

সৌদি আপ্যায়ন ও বিনোদন কর্তৃপক্ষের প্রধান তুর্কি আল শেখ এ ছবিগুলোর বিষয়ে টুইটারে মন্তব্য করে বলেন, “নিরাপত্তাকর্মীরা এখন মাঠে।” অপর দিকে যুবরাজ সাট্টাম বিন খালিদ বিন নাসের আল সৌদ এ ছবিগুলোর বিষয়ে কমেন্ট বক্সে সবুজ হৃদয় ও সৌদি পতাকার ছবি পোষ্ট করেন।

সৌদি আরবের শিক্ষাবিদ তুর্কি আল-হামিদ এক ছবির বিষয়ে মন্তব্য করে বলেন, “এ একটি ছবি হাজারো কথা বলছে… এ ছবিটি এমন একটি চিত্র যার অনেক অর্থ… এর মানে এটা নতুন সৌদি আরব। এ দেশটি দ্রুত আধুনিক যুগে প্রবেশ করেছে।”

রাজনৈতিক বিশ্লেষক আলি সিহাবি বলেন, “এক সৌদি নারী পুলিশ কর্মকর্তা মক্কায় হজ কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করার দায়িত্বে আছেন, এটা সৌদি সমাজের বিস্ময়কর পরিবর্তন।”

সংবাদ সূত্রঃ সিয়াসাত ডটকম