শ্মশানে উপচে পড়ছে মৃতের সংখ্যা ‘হাউসফুল’ নোটিশ ঝুলছে গেটে

সূত্রঃ ইন্ডিয়া টুডে

ভারতে করোনা মহামারি ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। দেশটিতে প্রাণঘাতি এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা সাড়ে তিন হাজারের আশেপাশে। এখন ভারতের প্রায় প্রতিদিনকার চিত্র অক্সিজেনের অভাবে করোনা রোগীর মৃত্যুর পর হাসপাতালের বাইরে স্বজনদের আহাজারির দৃশ্য। দিল্লি, মুম্বাইয়ের পাশাপাশি কর্নাটক, গুজরাট এবং এমনকি উত্তর প্রদেশেও চরম আকার ধারণ করেছে অক্সিজেন সংকট।

এদিকে ভারতের হাসপাতালের মর্গ ও শ্মশানগুলোতে মৃতের সংখ্যা উপচে পড়ছে। মৃতদেহের সারি পড়ে আছে মর্গের বাইরেই। শেষকৃত্যের জন্য স্বজনদের অপেক্ষা করতে হচ্ছে ঘণ্টার পর ঘণ্টা।

এদিকে ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য কর্নাটকের চামরাজপেটের শ্মশানে মরদেহ শেষকৃত্যের জায়গা না থাকায় শ্মশানের গেটে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে ‘হাউসফুল’ নোটিশ।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডে জানায়, প্রতিদিন ওই অঞ্চলে করোনায় আক্রান্ত হয়ে বিপুল সংখ্যক মানুষের মৃত্যু হচ্ছে। মৃতদেহ সৎকার করার জায়গার অভাবে শ্মশানের বাইরে ‘হাউসফুল’ সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে দিয়েছে শ্মশান কর্তৃপক্ষ। এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে এই ছবি।

ইন্ডিয়া টুডে জানায়, ওই শ্মশানে প্রতিদিন ২০টি মৃতদেহ ঢুকিয়ে নিয়ে গেটে ‘হাউসফুল’ সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এদিকে করোনায় মৃতদের সৎকারের জন্য বেঙ্গালুরু শহরের পাশেই ২৩০ একর জমি দিয়েছে সরকার। তারপরেও শহরের শ্মশানে লাইনের সৃষ্টি হচ্ছে।

এদিকে কর্নাটকে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন ৪৪ হাজার ৪৩৮ জন। একই সময়ে মারা গেছেন ২৩৯ জন। এ নিয়ে রাজ্যটিতে এখন পর্যন্ত ১৬ হাজার মানুষ করোনার থাবায় মৃত্যুবরণ করেছেন।

সংবাদ সূত্রঃ ইন্ডিয়া টুডে