সাইবার হামলার পর যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন জুড়ে গ্যাস সঙ্কট

সংগৃহীত ছবি

যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ভুগছে গ্যাস সঙ্কটে। এ গ্যাসের সঙ্কট তৈরি হয়েছে ভয়াবহ সাইবার হামলার পর। অনেক গ্যাস স্টেশন গ্যাস না থাকায় বন্ধও হয়ে গেছে। এদিকে, সরবরাহে ঘাটতি থাকায় বেড়ে গেছে গ্যাসের দাম যা ২০১৪ সালের পর সর্বোচ্চ।

সংবাদ সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বড় পাইপলাইন নেটওয়ার্ক গ্যাস সরবরাহ বাড়ালেও কমেনি সঙ্কট। এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা আশ্বস্ত করেছেন, শীঘ্রই স্বাভাবিক হবে গ্যাস সরবরাহ।

যুক্তরাষ্ট্রের কলোনিয়াল পাইপলাইন সাইবার হামলার কারণে ৬ দিন বন্ধ ছিল। পাইপলাইন নেটওয়ার্ক স্বাভাবিক হওয়ার পর সবাই হুমড়ি খেয়ে পড়েছেন গ্যাস কিনতে। ফলে যুক্তরাষ্ট্রের অনেক স্থানে গ্যাস শেষ হয়ে যাওয়ায় স্টেশনগুলো বন্ধ হয়ে যায়।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি যুক্তরাষ্ট্রে স্বাভাবিক হতে থাকায় বেড়াতে বের হচ্ছেন অনেকেই। এ কারণেও গ্যাসের চাহিদা বেড়ে গেছে। শুধু ওয়াশিংটন নয়, যুক্তরাষ্ট্রে বেশ কয়েকটি অঙ্গরাজ্যেও গ্যাসের সঙ্কটের খবর পাওয়া গেছে। অনেক গাড়ি চালক এক স্টেশন থেকে আরেক স্টেশন ঘুরে বেড়াচ্ছেন গ্যাস সংগ্রহের জন্য কিন্তু সরবরাহে ঘাটতি থাকায় বেশিরভাগই ব্যর্থ হয়ে ফিরছেন।

একদিকে সঙ্কট, অন্যদিকে চাহিদা বৃদ্ধি- দুই মিলে এখন বেড়ে গেছে গ্যাসের দাম। যুক্তরাষ্ট্রে গ্যাসের দাম এখন ২০১৪ সালের অক্টোবরের পর সর্বোচ্চ বলে জানিয়েছে আমেরিকান অটোমোবাইল অ্যাসোসিয়েশন।

সাইবার হামলার পর মার্কিন রাজনীতিবিদরা যুক্তরাষ্ট্রের সাইবার প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা আরও দৃঢ় করার ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন।

সংবাদ সূত্রঃ সংবাদ সংস্থা রয়টার্স