খুলছে না লাকসামের মার্কেট-শপিংমল

Laksam

করোনা আতঙ্কে আতঙ্কিত গোটা বিশ্ব। কুমিল্লার লাকসামের মার্কেট, শপিংমল ও বিপণি বিতানসমূহ আপাতত খুলছে না। করোনা পরিস্থিতির সন্তোষজনক উন্নতি হলে সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীলদের পরবর্তী সিদ্ধান্তক্রমে ঈদকে সামনে রেখে কয়েকদিনের জন্য শর্ত সাপেক্ষে খোলার অনুমতি মিলতেও পারে। একাধিক সূত্রে এ তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে।

জানা যায়, লাকসাম দৌলতগঞ্জ একটি প্রসিদ্ধ ব্যবসা কেন্দ্র। এখানে প্রায় সহস্রাধিক কাপড়, গার্মেন্ট, জুতা ও কসমেটিক্স দোকান রয়েছে। পবিত্র রমজান মাসজুড়ে এসব প্রতিষ্ঠানের ব্যবসার ভরা মৌসুম। এসময় ব্যবসায়ী ও কর্মচারীদের চোখে ঘুম থাকে না। চলতি বছর করোনা পরিস্থিতি ব্যবসায়ীদের স্বপ্ন কেঁড়ে নিয়েছে। সরকারি সিদ্ধান্তে আজ ১০ মে (রবিবার) থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে শর্ত সাপেক্ষে মার্কেট, শপিংমল ও বিপণি বিতান খোলা থাকলেও করোনা ঝুঁকির বিষয়টি বিবেচনায় লাকসাম দৌলতগঞ্জ বাজারের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসমূহের সাটার খুলছে না। অন্যান্য সময়ের ব্যস্ততম এ বাজারের দোকানসমূহে এখনো ঝুলছে তালা।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্যানুসারে, কুমিল্লা জেলার মধ্যে লাকসাম করোনা ঝুঁকিতে রয়েছে। এখানে একই পরিবারের ৮জন সহ ১৩জন ইতোমধ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্তদের মধ্যে ১২ জনই শহর এলাকার। ইতোমধ্যে শহরের একজন এবং বাইরের একমাত্র রোগী সুস্থ হয়েছেন। অন্যদের আইসলোশনে রেখে চিকিৎসা চলছে।

লাকসাম দৌলতগঞ্জ ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক তাবারক উল্লাহ কায়েস জানান, করোনাভাইরাস প্রাণঘাতী রোগ। এতে বিশ্বব্যাপী অনেক মানুষ আক্রান্ত ও মারা যাচ্ছে। ঝুঁকির বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে আপাতত দৌলতগঞ্জ বাজারের মার্কেট, শপিংমল ও বিপণি বিতানসমূহ বন্ধ থাকবে। বৃহৎ জনগোষ্ঠীকে করোনা সংক্রমণ থেকে রক্ষা করতেই এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। পরিস্থিতির সন্তোষজনক উন্নতি হলে সকলের পরামর্শক্রমে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।