আগৈলঝাড়ায় আয়াদের দিয়ে প্রসবের সময় গর্ভের সন্তানসহ প্রসূতির মৃত্যু, আটক ২

hospital

আজ বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার পশ্চিম বাগধা রেড ক্রিসেন্ট মাতৃসদন ক্লিনিকে গর্ভাবস্থায় মা ও এক নবজাতকের মৃত্যু হয়েছে। সংশ্লিষ্টদের অবহেলায় তাদের মৃত্যু হয় বলে অভিযোগ করা হয়েছে। এ ঘটনার পর ক্লিনিক বন্ধ করে দিয়ে অভিযুক্ত দুই আয়াকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে পুলিশ। পরে প্রসূতির মরদেহ উদ্ধার করে সোমবার (৯ নভেম্বর) দুপুরে ময়না তদন্তের জন্য বরিশাল মর্গে প্রেরন করে পুলিশ।

মৃত সীমা বেগম (৩৫) ওই উপজেলার দক্ষিণ চাঁদত্রিশিরা গ্রামের দরিদ্র ভ্যানচালক মন্টু বাহাদুরের স্ত্রী। চতুর্থ সন্তানের প্রসব বেদনা শুরু হলে সোমবার সকাল ৭টার দিকে তাকে রেড ক্রিসেন্ট মাতৃসদন ক্লিনিকে নেয়া হয়। পরে গর্ভের সন্তানসহ মারা যায় সীমা। সীমা বেগমের দুই ছেলে এবং এক মেয়ে রয়েছে।

আগৈলঝাড়া থানার ওসি গোলাম ছরোয়ার জানান, সরকারি অনুমোদনহীন ওই ক্লিনিকে কোন রেজিষ্ট্রার চিকিৎসক না থাকার পরও সেখানে কর্মরত আয়া রাশিদা বেগম ও আয়া বেগম সকাল সাড়ে ৯টার দিকে সীমা বেগমের ডেলিভারী করানোর চেষ্টা করে। এসময় অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে গর্ভের সন্তানসহ সীমার মৃত্যু হয়।

বিষয়টি সীমার স্বজনদের কাছে গোপন রেখে সীমাকে অন্যত্র নিয়ে ডেলিভারী করার কথা বলে ওই আয়ারা দ্রুত সটকে পড়েন। খবর পেয়ে তার মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বরিশাল মর্গে প্রেরন করে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ওই ক্লিনিকের দুই আয়া রাশিদা বেগম ও আয়া বেগমকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেলে মামলা দায়েরসহ আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।