খুঁটিতে বেঁধে গৃহবধূকে নির্যাতন, গ্রেফতার ৪

Pirganj

বাংলাদেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের রংপুর বিভাগের প্রশাসনিক অঞ্চল রংপুরের পীরগঞ্জে গ্রাম্য শালিসে সাক্ষী দিতে অস্বীকার করায় এক গৃহবধূকে বাঁশের খুঁটির সাথে হাত বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় পুলিশ ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে। সোমবার রাতে উপজেলার বিভিন্নস্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। তারা হলেন- সুরুজ মিয়া, সুমন মিয়া, নওশা মিয়া ও রাসেল মিয়া।

পুলিশ ও ভুক্তভোগীর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, নিজ কাবিলপুর গ্রামের নওশা মিয়া নামে এক জনের বিরুদ্ধে পরকীয়ার অভিযোগ উঠে। এ বিষয়ে সালিশে রহিম বাদশার স্ত্রীকে সাক্ষী দিতে বলা হলে তিনি সাক্ষী দিতে অস্বীকার করেন। পরে রহিম বাদশার বাড়িতে গিয়ে মৃত হাছেন আলীর ছেলে সুমন ও সুরুজ মিয়াসহ বেশ কয়েকজন চামেলী বেগমকে বাঁশের খুঁটির সাথে বেঁধে নির্যাতন করেন।

পরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম রবি ওই গৃহবধূকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করায়। এ ঘটনায় সোমবার রাতে নির্যাতিতার স্বামী রহিম বাদশা পীরগঞ্জ থানায় ৮জনকে আসামি করে মামলা করেন। মামলা দায়ের পরপরই পুলিশ গ্রেফতার অভিযানে নামেন।

এ বিষয়ে পীরগঞ্জ থানার ওসি সরেস চন্দ্র জানান, গ্রেফতার ৪ জনকে আদালতের মাধ্যমে জেল-হাজতে পাঠানো হয়েছে। অন্যান্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।