ওয়ার্ক পারমিট ছাড়া অবৈধভাবে কাজ করছে নায়িকা দর্শনা

Darshana Banik

আসন্ন ঈদে ঢালিউডের জনপ্রিয় তারকা শাকিব খানের নতুন সিনেমা হতে যাচ্ছে ‘অন্তরাত্মা’। সিনেমাটিকে ঘিরে শুরু হয়েছে ভিবিন্ন প্রকার আলোচনা। বর্তমানে পাবনায় সিনেমাটির শুটিং নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন তিনি। এই সিনেমায় শাকিবের সঙ্গে জুটি বেঁধে ক্যামেরার সামনে দাঁড়িয়েছেন কলকাতার উঠতি নায়িকা দর্শনা বণিক। তবে দর্শনার বাংলাদেশে ওয়ার্ক পারমিটের আবেদন এখনও অনুমোদন পায়নি বলে জানিয়েছে তথ্য মন্ত্রণালয়।

গেলো ১০ মার্চ ঢাকায় এসে ১১ মার্চ থেকেই পাবনা সদরের একটি রিসোর্টে চলচ্চিত্রের দৃশ্যধারণে অংশ নেন দর্শনা। তাহলে কি তিনি ট্যুরিস্ট ভিসায় এসে কাজ করছেন নাকি ওয়ার্ক পারমিট নিয়েই বৈধ উপায়ে এদেশে কাজ করে পারিশ্রমিক নিয়ে যাচ্ছেন? উত্তর খুঁজতে গিয়ে জানা গেল, বর্তমানে করোনার কারণে ট্যুরিস্ট ভিসা বন্ধ রয়েছে। তাই এই ভিসায় এসে ট্যাক্স ফাঁকি দিয়ে কাজ করে অর্থ উপার্জনের সুযোগ নেই বিদেশিদের। সম্ভাবনা হতে পারে মেডিকেল ভিসাসহ জরুরি ভিত্তিতে অন্য কোনো উপায়।

Darshana Banik

দেশীয় চলচ্চিত্রে বিদেশি অভিনয়শিল্পীদের অংশগ্রহণ সংক্রান্ত নীতিমালা-২০২০ (সংশোধিত) অনুযায়ী দেশের বাইরের কোনো শিল্পী দেশের চলচ্চিত্রে অংশগ্রহণের জন্য তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে ‘ওয়ার্ক পারমিট’ নেওয়ার বিধি রয়েছে। সপ্তাহখানেক আগে কলকাতার এ নায়িকার শুটিংয়ের অনুমতি চেয়ে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশনে (বিএফডিসি) প্রস্তাব পাঠায় তরঙ্গ এন্টারটেইনমেন্ট। পাঁচ দিন আগে সুপারিশসহ প্রস্তাবটি তথ্য মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়। তবে এফডিসি থেকে পাঠানো ওই প্রস্তাব এখনও অনুমোদন পায়নি বলে জানিয়েছেন তথ্য মন্ত্রণালয়ের উপসচিব (চলচ্চিত্র-১) মো. সাইফুল ইসলাম।

এমন পরিস্থিতিতে বেশ গোপনেই দর্শনাকে নিয়ে শুটিং করছিলেন ছবির পরিচালক ওয়াজেদ আলী সুমন। ১৩ মার্চ পর্যন্ত তিনি দাবি করেছেন, তার ছবির নায়িকা দর্শনা এখনো বাংলাদেশে আসেননি। অথচ তিনি কয়েকদিন আগেই কলকাতা থেকে এসেছেন এবং শুটিং করছেন। শুধু তাই নয়, স্থানীয় অনেক দর্শকের তোলা ছবি ও ভিডিওতে শাকিবের সঙ্গে দেখা গেছে দর্শনাকে।

Darshana Banik

অবশেষে রোববার (১৪ মার্চ) নায়িকার বাংলাদেশে আসার কথা স্বীকার করে ওয়ার্ক পারমিটের বিষয়ে বলেন, ‘এসব বিষয় দেখার চেয়ে আপনাদের মন দেয়া উচিত দেশে সিনেমা হচ্ছে কি না। কি ধরনের সিনেমা হচ্ছে। সেটি মানসম্পন্ন হচ্ছে কি না। কোন বিদেশি আর্টিস্ট কীভাবে কাজ করে গেল সেটা দেখা কি খুব জরুরি?’

তিনি আরো বলেন, ‘আগেও তো অনেকে ওয়ার্ক পারমিট ছাড়া কাজ করেছে। ওয়ার্ক পারমিট না থাকলেও কাজ হচ্ছে না? নায়িকা কি ভিসায় এসেছে তার সবই এফডিসি কর্তৃপক্ষের কাছে গেলে জানতে পারবেন। সবার কাছে এখন সিনেমার ব্যাপারে সহযোগিতা চাই। একটি ভালো গল্প নিয়ে কাজ করছি। সিনেমাটি যেন শেষ করতে পারি।’

Darshana Banik

এদিকে কিছু সূত্র নিশ্চিত করেছে, মেডিকেল ভিসায় বাংলাদেশে এসেছেন দর্শনা। এখানে এসে পেশাদার কোনো কাজের অনুমতি নেই তার। তিনি সরাসরি মুম্বাই থেকে ভিসা নিয়ে ২৯ দিনের জন্য এ যাত্রায় বাংলাদেশে এসেছেন।

প্রসঙ্গত, এর আগে ২০১৭ সালেও পরিচালক ওয়াজেদ আলী সুমনের ‘মনে রেখো’ নামে একটি ছবির শুটিংয়ে ওয়ার্ক পারমিট ছাড়া অংশ নিয়েছিলেন কলকাতার বনি সেনগুপ্ত। একই বছরের আগস্ট মাসে ওয়ার্ক পারমিট ছাড়া একটি টিভি নাটকের শুটিংয়ে অংশ নেওয়ায় কলকাতার অভিনেতা পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছিলেন টিভিকেন্দ্রিক ১৩টি সংগঠনের জোট ‘এফটিপিও’ এর সদস্য সচিব গাজী রাকায়েত। পরে সেই শুটিং স্থগিত করা হয়েছিল।

Darshana Banik

এছাড়াও, ২০১৮ সালের দিকে রাজধানীর উত্তরায় পরিচালক অনন্য মামুনের পরিচালনায় ‘ফোন এক্স’ নামে একটি ওয়েব সিরিজের শুটিং চলাকালে বিদেশী শিল্পীদের ‘ওয়ার্ক পারমিট’ না থাকায় শুটিং স্থগিত করা হয়েছিল। পুরনো রেকর্ড অনুযায়ী ‘অন্তরাত্মা’র ভবিষ্যৎ কোথায় গিয়ে দাঁড়ায় সেটি সময়ই বলে দিবে।