বেসরকারিভাবেও করোনা টিকা আনার সুযোগ দেওয়া উচিত: রুস্তম আলী

foraji

বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য (এমপি) ডা. রুস্তম আলী ফরাজী জানিয়েছেন যে, সরকারের পাশাপাশি বেসরকারিভাবেও করোনা টিকা আনার সুযোগ দেওয়া উচিত।

আজ বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) সকালে জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনা ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন।

এ সময় অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। রুস্তম আলী ফরাজি বলেন, বেসরকারিভাবে বিশেষজ্ঞ কমিটির মাধ্যমে যারা দক্ষ তাদের সঙ্গে আলোচনা করে করোনা টিকা আনার অনুমতি দেওযা উচিত। একটা ডোজ কিনতে ৬০০ থেকে ৭০০ টাকা লাগবে। দেশের ৫০ শতাংশ মানুষ এ টাকা দিয়ে টিকা কিনে নিতে পারবেন। তাদের ক্রয় করে দেওয়া সুযোগ করে দেওয়া উচিত। যারা পারবে না তাদের জন্য সরকারিভাবে এনে বিনামূল্যে দেওয়া হোক, এটা আমার প্রস্তাব।

করোনা মোকাবিলায় সরকার সফল জানিয়ে তিনি বলেন, করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশ সফলতা দেখিয়েছে, যা অনেক উন্নত দেশ পারেনি। করোনা মোকাবিলা করে বাংলাদেশ অর্থনৈতিকভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। আজ আমরা যেটা ভাবছি, বাংলাদেশকে বিশ্বের ২৫তম অর্থনীতির দেশ হিসেবে সেটা অনেক আগেই হতো। হয়নি বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়েছিলো বলে। এ করোনার সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অর্থনীতির চাকা সফল রেখেছেন। সারা বছর তিনি সব কিছু বন্ধ করে রাখেনি।

বাংলাদেশের অর্থনীতি এখন যে অবস্থায় আছে এটা যদি ধরে রাখা যায় আমরা আরও এগিয়ে যাবো। বিশ্ব ব্যাংক, আইএমএফ বলছে, বাংলাদেশ অর্থনৈতিকভাবে এগিয়ে গেছে। করোনার মধ্যে কীভাবে এগিয়ে গেলো তারা ভাবছে। আসলে এটা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারণে সম্ভব হয়েছে। এটা ধরে রাখতে হলে ঝুঁকি আছে। এর জন্য সামাজিক শক্তিগুলোকে কাজে লাগাতে হবে। দুনীতি মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স দেখাতে হবে। প্রধানমন্ত্রী জিরো টলারেন্স নিয়েছেন সেটা বাস্তবায়ন করতে হবে। আইনের কঠোর প্রয়োগ দেখাতে হবে।

রুস্তম আলী ফরাজী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কোনো সমালোবচনায় কান না দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, সমালোচকরা সমালোচনা করবে কান না দিয়ে এগিয়ে যান। আপনার উপর মানুষের আস্থা আছে। সেটা যেনো নষ্ট না হয়।