জেনে নিন যা খাবেন এই গরমে

desi vegetables

এই গরমে শরীরের আরামের জন্য প্রয়োজন দেশীয় সবজি। এবার গরমের মধ্যেই রেড মিট বা লাল মাংস (গরু, খাসি, দুম্বা প্রভৃতির মাংস), তৈলাক্ত ও মসলাদার খাবার খাওয়া হলো প্রচুর। পাশাপাশি মিষ্টান্নও কম খাওয়া হয়নি। প্রচণ্ড গরমে এসব খাবার শরীরের তাপ আরও বাড়িয়ে দেয়। সুস্থ থাকতে তাই আমাদের এখন এমন খাবার খাওয়া উচিত, যা শরীরকে শীতল রাখবে।

শরীর শীতল রাখে যেসব খাবার

# পানি: প্রচণ্ড গরমে অতিরিক্ত ঘামের কারণে শরীর থেকে পানি ও সোডিয়াম বের হয়ে যায়। এ কারণে পানিশূন্যতা, দুর্বলতা, মাথা ঘোরাসহ বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয়। এ জন্য প্রতিদিন অন্তত ১২ গ্লাস করে পানি পান করা উচিত। পাশাপাশি স্যালাইন বা সামান্য লবণমিশ্রিত পানিও পান করা যেতে পারে।

# ডাবের পানি: ডাবের পানিতে প্রচুর মিনারেলস রয়েছে, যা শরীর শীতল রাখতে সাহায্য করে।

# সবজি: ঝিঙে, চিচিঙ্গা, ধুন্দুল, পটোল, লাউ, জালি কুমড়া, পেঁপে প্রভৃতি সবজিতে প্রচুর জলীয় অংশ থাকে। এগুলো সহজে হজমও হয়।

# মাছ: প্রোটিনের চাহিদা পূরণে মাছ কিংবা বীজ-জাতীয় খাবার খেতে পারেন। মাছ, ডাল বা বীজ-জাতীয় খাবার সহজে হজম হয়।

# ফল: শরীরে পানি ও খনিজের ভারসাম্য রক্ষা করতে রসালো ফল যেমন আম, তরমুজ, আনারস, বাঙ্গি, আপেল, কলা, মাল্টা, কমলা, আঙুর নিয়মিত খান।

# সালাদ: শরীর শীতল রাখতে শসা, টমেটো, ক্যাপসিকাম, লেটুস পাতা প্রভৃতির জুড়ি নেই। এসবে প্রচুর পানি থাকে।

# পালংশাক: পালংশাকে প্রচুর পানি এবং প্রচুর ভিটামিন, মিনারেলস ও আঁশ রয়েছে। দুপুরে পালংশাক খাবারের তালিকায় রাখতে পারেন।

# দই: টক দই দিয়ে লাচ্ছি বা দইয়ের ঘোল তৈরি করে খেতে পারেন। এতে শরীর ঠান্ডা থাকবে। খাওয়ার পর দই খেতে পারেন।

# লেবুর শরবত: দিনে কয়েকবার লেবুর শরবত খেতে পারেন। লেবুর শরবতের সঙ্গে পুদিনা পাতা যোগ করতে পারেন। এতে শরীরে পানির ভারসাম্য রক্ষার পাশাপাশি ভিটামিন সি-এর চাহিদাও পূরণ হবে।

গরমে যেসব খাবার খাওয়া ঠিক নয়
# মসলাযুক্ত তৈলাক্ত খাবার, ফাস্টফুড, সফট ড্রিংকস এবং বরফশীতল পানীয় পান থেকে বিরত থাকুন। মাত্রাতিরিক্ত চা-কফি পান করা থেকেও বিরত থাকতে হবে।

লেখক, পুষ্টিবিশেষজ্ঞ, ইবনে সিনা কনসালটেশন সেন্টার, বাড্ডা
: প্রথম আলো