করোনায় সিগারেট বিক্রিতে সাময়িক নিষেধাজ্ঞার দাবি

ছবিঃ সংগৃহীত

জনস্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করতে অবলিম্বে করোনাভাইরাস মহামারি মোকাবিলায় দক্ষিণ আফ্রিকার অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে সিগারেট বিক্রির ওপর সাময়িক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করার আহ্বান জানিয়েছে তামাকবরিোধী সংগঠন বাংলাদেশ ক্যান্সার সোসাইট, বিসিসিপি, এইড ফাউন্ডেশন, গ্রাম বাংলা উন্নয়ন কমিটি, প্রত্যাশা, ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন, ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন, আত্মা এবং প্রজ্ঞাসহ আরও কয়েকটি সংগঠন।

মঙ্গলবার সংগঠনগুলোর পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে এই আহ্বান জানানো হয়।

এতে বলা হয়, তামাক করোনা সংক্রমণ ‘সহায়ক’ পণ্য। এটি কোনো নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য নয়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, ধূমপানের কারণে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়া এবং গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ার ঝুঁকি থাকে। এই সতর্কতা আমলে নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা ইতোমধ্যে করোনা ভাইরাস সংকট মোকাবিলায় সিগারেট বিক্রির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। অথচ, এই ভয়াবহ পরিস্থিতিতেও বাংলাদেশে দুইটি বহুজাতিক তামাক কোম্পানিকে (সংযুক্ত) সিগারেট উৎপাদন, বিপণন ও তামাক পাতা কেনা অব্যাহত রাখার সুযোগ দেওয়া হয়েছে। এ অবস্থায় সংগঠনগুলো অবিলম্বে সিগারেট বন্ধের বিষয়ে সরকারের পদক্ষেপ গ্রহণের আহ্বান জানায়। শিল্প মন্ত্রণালয় সম্প্রতি এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিয়ে সব বিভাগীয় কমিশনার এবং জেলা প্রশাসক বরাবর চিঠি দিয়েছে।

বাংলাদেশে ৩ কোটি ৭৮ লাখ প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ তামাক ব্যবহার করেন। প্রায় ৪ কোটি ১০ লাখ প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ নিজ বাড়িতেইে পরোক্ষ ধূমপানের শিকার হন। প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে তামাকের ক্ষতির শিকার এই বিপুল প্রাপ্তবয়স্ক জনগোষ্ঠী বর্তমানে মারাত্মকভাবে করোনাভাইরাসের ঝুঁকির মধ্যে রয়েছেন।