আগামী ২০ ফেব্রুয়ারি থেকে ঢাবি এলাকায় যান চলাচলে নিয়ন্ত্রণ

DMP

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস-২০২১ ও অমর একুশে ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে সব ধরনের নিরাপত্তামূলক প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। নিরাপত্তার স্বার্থে আগের দিন সন্ধ্যা থেকেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) এলাকায় সব ধরনের যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হবে।

আজ বৃহস্পতিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ডিএমপি সদর দপ্তরে ‘শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস-২০২১’ উপলক্ষে নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত এক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে সমন্বয় সভায় ঢাবির প্রক্টর, ডিএমপির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন, ফায়ার সার্ভিস, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়সহ সরকারের বিভিন্ন সেবামূলক প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় জানানো হয়, একুশে ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে যানবাহন নিয়ন্ত্রণে নির্দিষ্ট স্থানে ব্যানার, দিকনির্দেশক সাইনবোর্ড স্থাপন করা এবং ডাইভারশন ব্যবস্থা করা হবে। একুশে ফেব্রুয়ারির আগের দিন অর্থাৎ, ২০ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৬টা থেকে ২১ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় সব ধরনের যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ থাকবে।

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকা অর্থাৎ, ঢাবি কেন্দ্রিক ১২টি পয়েন্টে ব্যারিকেড দিয়ে যানবাহন ও জনসাধারণের চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হবে।

নীলক্ষেত ক্রসিং, পলাশী ক্রসিং, ফুলার রোড মোড়, বকশীবাজার ক্রসিং, চানখারপুল ক্রসিং, শহীদুল্লাহ হল ক্রসিং, দোয়েল চত্বর ক্রসিং, জিমনেশিয়াম ক্রসিং, রোমানা ক্রসিং, হাইকোর্ট ক্রসিং, টিএসসি সড়কদ্বীপ ও শাহবাগ ক্রসিং থেকে যান চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হবে।

পার্কিংয়ের এলাকা- ভিভিআইপি, ভিআইপি ও বিদেশি কূটনীতিকদের জন্য ঢাবির খেলার মাঠ (জিমনেশিয়াম), আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এনেক্স ভবন মাঠ এবং সর্ব সাধারণের জন্য নীলক্ষেত, পলাশী ও ঢাকেশ্বরী সড়কের নির্ধারিত স্থানে পার্কিং করতে হবে।

সভাপতির বক্তব্যে ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে এবারের পরিস্থিতি কিছুটা ভিন্ন। অন্য বারের তুলনায় সবাইকে বেশি সতর্ক থাকতে হবে। ব্যক্তিগত আবেগের জায়গা থেকে মানুষ শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করতে আসে। তাই সবাইকে সর্বোচ্চ মানবিকতা দিয়ে তাদের সেবা নিশ্চিত করতে হবে।