বাঁচতে হলে লড়তে হবে, লড়াই করে জিততে হবে: ওবায়দুল কাদের

Obaidul Quader

দেশে সম্প্রতি বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব নতুন করে ছড়িয়ে পড়ার প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, প্যানডেমিকের প্রথম তরঙ্গের অভিঘাতে পরিবর্তিত পৃথিবীর নবনির্মাণ প্রক্রিয়ায় আবারও প্রচণ্ড আঘাত হেনেছে দ্বিতীয় তরঙ্গ।

আজ শুক্রবার (৯ এপ্রিল) সরকারি বাসভবন থেকে নিয়মিত প্রেস ব্রিফিংয়ে এ কথা বলেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রথম ধাক্কা সামলাতে না সামলাতেই সজোরে দ্বিতীয় ধাক্কা। আবারও বিধ্বংসী পরিবর্তনের স্রোতে ভেসে যাচ্ছে অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখা স্বপ্নগুলো। লণ্ডভণ্ড হয়ে যাচ্ছে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনধারা।

প্রচণ্ড এক ঝড়ের কবলে পড়ে হাত পা গুটিয়ে শুধু নিয়তিনির্ভর হয়ে থাকলে চলবে না জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, বাঁচতে হলে লড়তে হবে, লড়াই করে জিততে হবে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, হতাশার কারণ নেই, কারণ এ লড়াইয়ের নেতৃত্বে আছেন সময়ের অসম সাহসী কাণ্ডারি বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। যিনি শত বিপদ বাধা চ্যালেঞ্জের মুখেও হাল ছাড়েন না।

আগামী ১৪ এপ্রিল থেকে এক সপ্তাহের জন্য সর্বাত্মক লকডাউনের বিষয়ে সরকার চিন্তা-ভাবনা করছে বলে জানিয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, লকডাউনের মতো কঠোর পদক্ষেপে সবচেয়ে বিপর্যস্ত হবে আমাদের দেশের বহু প্রান্তিক মানুষ। আসুন আমরা সংকীর্ণ দলীয় রাজনীতি থেকে বেরিয়ে এসে দল-মত-নির্বিশেষে বিপন্ন মানবতার পাশে দাঁড়াই। সরকারের পাশাপাশি সব শ্রেণি-পেশার সামর্থ্যবানদের সাহায্যের হাত খেটে খাওয়া মানুষ ও ভাসমান জনগোষ্ঠীর দুঃখ-কষ্টের লাঘব ঘটাতে পারে।