গুজব ঠেকাতে নেতা-কর্মীদের সতর্ক থাকার নির্দেশ ওবায়দুল কাদেরের

ছবিঃ সংগৃহীত

তথ্য-প্রযুক্তির অবাধ প্রবাহ মানুষের পারস্পরিক যোগাযোগ সহজ করেছে। এখন পৃথিবীর এক প্রান্তের মানুষ অন্য প্রান্তের চেনাজানা আপনজন বা অপরিচিত কোনো মানুষের সঙ্গে ভাবের আদান-প্রদান ও তথ্যের বিনিময় করতে পারে খুব সহজেই। প্রযুক্তির এই উন্নয়ন মানুষের জীবনকে সহজ ও সাবলীল করেছে। গোটা মানবজাতিকে গতিশীল করেছে। কিন্তু একই সঙ্গে তথ্যের অবাধ প্রবাহ মানুষকে বিভ্রান্তও করছে। মানুষ স্বার্থ হাসিলের জন্য সমাজে ভুল ও মিথ্যা কিংবা আংশিক মিথ্যা ছড়িয়ে দিচ্ছে। সমাজে ভয়ভীতি ও আতঙ্কের সৃষ্টি করছে।

এদিকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি মতলববাজ গোষ্ঠী করোনাভাইরাস নিয়ে অপপ্রচার চালানোর চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, গুজব ছড়ানোর মাধ্যমে সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করার তৎপরতা চলছে। গুজব ঠেকাতে দলীয় নেতা-কর্মীদের সতর্ক পাহারায় থাকতে হবে।

আজ শুক্রবার দুপুরে তাঁর সরকারি বাসভবন থেকে এক ভিডিও বার্তায় এমন নির্দেশনা দেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ অনুযায়ী প্রশাসন, সেনাবাহিনী, আমাদের নেতা কর্মী, জনপ্রতিনিধি ও দেশের বিভিন্ন শ্রেণির মানুষ সামর্থ্য অনুযায়ী সবাই এগিয়ে আসছেন। চিকিৎসক-নার্সসহ স্বাস্থ্যকর্মীরা তাদের ওপর দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করছেন।

করোনা প্রতিরোধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া ৩১ দফা নির্দেশনা পালন করতে সবার প্রতি আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিশ্ব এক ভয়ংকর পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। দেশে দেশে সংকট আরও ঘনীভূত হচ্ছে। খেটে খাওয়া মানুষ আজ কষ্ট পাচ্ছেন। সরকার সহযোগিতা নিয়ে তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে। দলের প্রতিনিধি, জনপ্রতিনিধি, সমাজের বিত্তবানরাও এগিয়ে এসেছেন। এটা অত্যন্ত আশাব্যঞ্জক দিক।