ফের হাসপাতালে জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে

Shinzō Abe

মহামারী করোনার প্রভাবে অনেক সাধারন কর্মচারীরা চাকুরী হারা হলেও কাজের চাপ বেড়েছে গোটা বিশ্বের সকল প্রধানমন্ত্রীদের। জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে এই করোনা মহামারির মধ্যে অতিরিক্ত কাজের চাপে অবসাদে ভুগছেন। গত সপ্তাহে হাসপাতালে নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর সোমবার আবারও রাজধানী টোকিওর একটি হাসপাতালে গিয়েছিলেন শিনজো অ্যাবে। জানা গেছে অন্ত্রের রোগে ভুগছেন তিনি।

গত সপ্তাহে হাসপাতালে নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয় যে, প্রধানমন্ত্রী অ্যাবে তার নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে গিয়েছিলেন। চলতি মাসের শুরুর দিকে জাপানের ইংরেজি সাপ্তাহিক পত্রিকা ফ্লাশের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত ৬ জুলাই প্রধানমন্ত্রী শিনজো অ্যাবে তার কার্যালয়ে রক্তবমি করেন। ওই সংবাদের পর থেকেই অ্যাবের শারীরিক অবস্থা নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয়।

বেশ কয়েকটি সরকারি ও জোট সূত্রের বরাত দিয়ে স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, গত সপ্তাহে মেডিকেল চেক-আপের ফলাফল জানতেই আবারও হাসপাতালে গেছেন শিনজো অ্যাবে। গত সপ্তাহে প্রায় সাড়ে সাত ঘণ্টা ধরে তার মেডিকেল চেক-আপ করা হয়।

শিনজো আবে ২০১২ সালে জাপানের ক্ষমতা গ্রহণ করেন। বর্তমানে দ্বিতীয় মেয়াদে জাপানের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি। তবে অ্যাবের হাঁটাচলার গতি আগের চেয়ে অনেকটা ধীর হয়ে যাওয়ায় সাম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে তার শারীরিক অবস্থা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

এদিকে, জাপানের লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির টেক্স প্যানেলের চেয়ারম্যান আকিরা আমারি জানিয়েছিলেন, করোনাভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবিলায় অত্যধিক কাজের চাপে অবসাদে ভুগতে পারেন প্রধানমন্ত্রী আবে।