বিগত কয়েক বছর ধরে ইউরোপে অস্ত্র ও বিস্ফোরক মজুদ করছে হিজবুল্লাহ

Hezbollah

বিগত কয়েক বছর ধরে ইউরোপের বিভিন্ন স্থানে হিজবুল্লাহ অস্ত্র ও বিস্ফোরক অ্যামোনিয়াম নাইট্রেটের মজুদ গড়ে তুলছে বলে দাবি করছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। আর এসব তারা ইরানের পরামর্শে বিস্ফোরণ ঘটানোর জন্য মজুদ করেছে।

তাই ডোনাল্ড ট্রাম্প নেতৃত্বাধীন দেশটির সরকার হিজবুল্লাহর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে ইউরোপীয় দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

লেবাননের বৈরুত বন্দরে অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট মজুদ রাখা গুদামে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ছয় সপ্তাহ পর ইউরোপ জুড়ে অস্ত্র ও বিস্ফোরক মজুদের জন্য হিজবুল্লাহকে অভিযুক্ত করলো যুক্তরাষ্ট্র। ছয় বছর ধরে ওই রাসায়নিক কিভাবে ওই মজুদ থেকেছে তা নিয়ে এখনও তদন্ত চলছে। অভিযোগ রয়েছে বন্দরটি পরিচালনায় হিজবুল্লাহর ব্যাপক প্রভাব রয়েছে।

এমন প্রেক্ষাপটে আমেরিকান ইহুদি কমিটির সঙ্গে এক ভিডিও কনফারেন্সে মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের সন্ত্রাস দমন বিষয়ক সমন্বয়ক নাথান সেলস বলেন, ‘আমি বলতে পারি যে এই ধরণের অস্ত্র বেলজিয়াম থেকে ফ্রান্স, গ্রিস, ইতালি, স্পেন ও সুইজারল্যান্ডে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। আরও বলতে পারি ফ্রান্স, গ্রিস ও ইতালিতে এই ধরণের বিপুল অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট উদ্ধার কিংবা ধ্বংস করা হয়েছে।’

মার্কিন কর্মকর্তা নাথান সেলস বলেন, ‘হিজবুল্লাহ আজকের দিনে যুক্তরাষ্ট্রের জন্য একটি পরিষ্কার বিপদ। আজকে ইউরোপের জন্যও বিপদজনক হয়ে উঠেছে হিজবুল্লাহ।’

হিজবুল্লাহর সামরিক শাখাকে সন্ত্রাসী গ্রুপ বলে বিবেচনা করে ইউরোপীয় ইউনিয়ন। তবে এর রাজনৈতিক শাখা নিয়ে ইউরোপীয় দেশগুলোর মধ্যে ভিন্নমত রয়েছে। যুক্তরাজ্য ও জার্মানি এই বছর পুরো হিজবুল্লাহকে সন্ত্রাসী তালিকাভুক্ত করে। ইউরোপের বাকি দেশগুলোও তা অনুসরণ করানোর চেষ্টা চালাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র।
: দ্য গার্ডিয়ান