যুক্তরাজ্যের রাজনৈতিক দলের প্রথম মুসলিম নেতা আনাস

Anas Sarwar

রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথের দেশ যুক্তরাজ্যে প্রথমবারের মতো একজন মুসলিম স্কটিশ লেবার পার্টির প্রধান হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। রাজনৈতিক দলের প্রথম মুসলিম নেতা হিসেবে নাম লিখিয়েছেন আনাস সরওয়ার। যুক্তরাজ্যের একটি ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক ধারার পরিবারের সন্তান তিনি।

এর আগে ১৯৯৭ সালে আনাসের বাবা মুহাম্মদ সরওয়ার যুক্তরাজ্যের গ্লাসগো সেন্টার থেকে প্রথম মুসলিম এমপি হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। এরপর একাধারে ১৩ বছর লেবার পার্টি থেকে এমপি হিসেবে সরওয়ার দায়িত্ব পালন করেন।

সম্প্রতি তরুণ নেতা আনাস সরওয়ার স্কটিশ লেবার পার্টির প্রধান হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন এমএসপি মনিকা লেনন।

১৯৮৩ সালে আনাস সরওয়ার যুক্তরাজ্যের গ্লাসগোতে জন্মগ্রহণ করেন। মাত্র ১৬ বছর বয়সে স্কটিশ লেবার পার্টির সদস্য হন তিনি। তবে পারিবারিক ঐতিহ্য হিসেবে রাজনৈতিক চিন্তা-চেতনা শৈশব থেকেই লালন-পালন করেন।

শৈশবের বর্ণবাদী আচরণের করুণ স্মৃতি স্মরণ করে তিনি জানান, ১৯৯৭ সালের দিকে তাঁর হাতে একটি খাম দেওয়া হয়েছিল। পত্রে তাঁর মায়ের প্রতীকী ছবিতে মাথায় বন্দুক ধরে রাখতে দেখা যায়। আর বলা হয়, ‘বিকট আওয়াজ, বিকট আওয়াজ, এসব কিছু ঘটবে।’

চারদিকে হুমদি-ধমকি ও বর্ণবাদী আচরণের পরও ২০১০ সালে আনাস নিজের চিকিৎসা পেশা ছেড়ে দেন। অতঃপর তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু করেন রাজনৈতিক জীবন। দীর্ঘ ১৩ বছর পর লেবার পার্টি যে আসনটি হারিয়েছেন তাতে তিনি বাবার মতোই বিজয়ী হন।

এমপি হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার পাশাপাশি আনাস সরওয়ার স্কটিশ লেবার পার্টির উপ-প্রধান হিসেবে নির্বাচিত হন।

বিবিসি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, আনাস সরওয়ার যুক্তরাজ্যের প্রধান রাজনৈতিক দলের নেতাদের মধ্যে প্রথম অ-শ্বেতাঙ্গ নেতা। একজন রাজনীতিবিদ হয়েও নানা রকম বর্ণবাদী আচরণের মুখোমুখি হওয়ার কথা নির্দ্বিধায় বলেছেন তিনি।