রাজধানীতে চোখে হলুদ-মরিচের গুড়া দিয়ে ছিনতাইয়ের চেষ্টা, ৩ নারী আটক

Woman snatcher

আজ বুধবার (৯ জুন) রাজধানীর ধামরাই পৌরসভার উত্তর পাতা দোয়েল ক্লাব সংলগ্ন রাস্তা থেকে মলম পার্টি ও ছিনতাইকারী চক্রের তিন নারী সদস্যকে আটক করেছে ধামরাই থানা পুলিশ। আজ সকালে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন- মানিকগঞ্জ জেলার সাটুরিয়া থানার কামতা গ্রামের লিয়াকত আলীর দুই মেয়ে শিরিন ও সালমা ও অপরজন একই গ্রামের আব্দুস সালামের মেয়ে সুমি আক্তার। তারা দির্ঘদিন ধরে এই পেশার সাথে জড়িত।

জানা যায়, সুইটি বেগম নামে এক নারী যাত্রী ধামরাই বাজার যাওয়ার উদ্দেশ্যে ইসলামপুর থেকে সিএনজিতে উঠে। ওই সিএনজিতে পূর্বেই তিন মহিলা ছিনতাইকারী যাত্রী সেজে বসে ছিল। সুইটি বেগম সিএনজি যোগে পৌরসভার উত্তর পাতা এলাকায় পৌঁছালে ওই তিন নারী ছিনতাইকারীরা তার চোখে মুখে মরিচ ও হলুদের গুড়া দিয়ে দেয়।

এসময় সুইটি ডাক-চিৎকার দিলে তা শুনে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসে এবং সিএনজিতে থাকা ৩ নারী ছিনতাইকারীকে আটক করে। আর সুযোগ বুঝে সিএনজি চালক পালিয়ে যায়। ভুক্তভোগী সুইটিকে চোখে মুখে পানি দিলে তার স্বাভাবিকতা ফিরে আসে এবং তার কাছ থেকে বিস্তারিত জেনে স্থানীয়রা থানায় ফোন দিলে ধামরাই থানার এসআই রশিদ এসে সিএনজিসহ মলম পার্টির ৩ নারী সদস্যকে থানা হেফাজতে নিয়ে নেয়।

ভিকটিম সুইটি বেগম জানান, ইসলামপুর থেকে ধামরাই বাজারের উদ্দেশ্যে সিএনজিতে উঠলে সিএনজিতে থাকা ৩ নারী আমার চোখে মুখে মরিচের গুঁড়ো দেওয়ার কারণে আমি চিৎকার শুরু করি। তখন দোয়েল ক্লাবের সামনে স্থানীয় জনতা আমাকে উদ্ধার করে।

এ ব্যাপারে ধামরাই এস আই রশিদ জানান, মলম পার্টির ৩ নারী সদস্যকে আটক করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।