৩৮ বছর বয়সী প্রেমিক, মনিকা বেলুচ্চি ৫৬

Monica Bellucci

‘এজ ইজ জাস্ট আ নাম্বার’—এই কথা ইতালীয় অভিনেত্রী মনিকা বেলুচ্চির চেয়ে আর কে ভালো জানে! ‘স্পেকট্রা’ সিনেমায় অভিনয় করে তিনি সবচেয়ে বেশি বয়সী বন্ডগার্লের রেকর্ড গড়েছেন। কিছুদিন আগেই মনিকার ১৬ বছর বয়সী মেয়ে ডেভা এলের কভারে স্থান নিয়ে আলোচনায় এসেছেন। আর এদিকে সাত বছর ধরে ‘রিলেশনশিপ সিঙ্গেল’ নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন মনিকা। সম্প্রতি আলোচনায় এসেছেন নতুন প্রেমিকের হাত ধরে।

সাত বছর ধরে ‘রিলেশনশিপ সিঙ্গেল’ নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন মনিকা। ৪০ বছর আগে ১৯৯০ সালে প্রথম বিয়ে করেছিলেন মনিকা। ক্লাডিও কার্লোস বাসোর ক্যামেরার সামনে পোজ দিতে দিতে হৃদয়টাও দিয়ে বসেছিলেন। মাত্র ১৬ বছর বয়সে মালা পরিয়েছিলেন ইতালীয় সেই আলোকচিত্রীকে। কিন্তু প্রেমের চেয়েও স্বল্পস্থায়ী হয়েছিল সেই বিয়ে।

সম্প্রতি আলোচনায় এসেছেন নতুন প্রেমিকের হাত ধরে। ১৮ মাসের মাথায় বিচ্ছেদপত্রে সই করেন মনিকা। দ্বিতীয়বার প্রেমে জড়াতে সময় নিয়েছেন। ১৯৯৬ সালে ‘দ্য অ্যাপার্টমেন্ট’ সিনেমার সেটে মনবিনিময় করেন সহশিল্পী ভিনসেন্ট ক্যাসেলের সঙ্গে। তিন বছর পর হলো আংটি আর মালাবদল। এই জুটি এক ছাদের নিচে ছিলেন দীর্ঘ ১৪ বছর। তাঁদের সংসারে জন্ম নেওয়া দুই মেয়ে ডেভা (১৬) আর লিওনি (১০)। এরপর আবার দীর্ঘ একা মনিকা।

সম্প্রতি তাঁকে দেখা গেছে প্যারিসের পথে। নিকোলাস লেফেভ নামের এক ভাস্করের হাত ধরে হাঁটছেন। দ্য মেইলের প্রতিবেদন অনুসারে মনিকা আর নিকোলাস তিন বছর হলো অত্যন্ত গোপনীয়তার সঙ্গে প্রেম করছেন।

প্রেমিকের নাম না নিয়ে গত বছর মনিকা প্যারিস ম্যাচকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, ‘আমি একজনকে জীবনের ভাগ দিয়েছি। সে একেবারেই আমার পেশার, আমার জগতের বাইরের লোক। সে প্রচুর ঘুরে বেড়ায়। তাঁর জীবন আমার নিজেকে বুঝতে সাহায্য করে। সে একটা সহজ–স্বাভাবিক ব্যক্তিগত জীবন চায়। আমি চাই না, আমার সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক তাঁর স্বাভাবিক জীবনের ছন্দে ব্যাঘাত ঘটাক। তাই পরিচয় জানাতে চাই না।’

monica

অন্যদিকে দ্য সোসালাইট ফ্যামিলিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ৩৮ বছর বয়সী লেফেভ জানান, আনাহি নামের আট বছর বয়সী একটা মেয়ে আছে তাঁর।

ভিনসেন্ট ক্যাসেলের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর এই প্রথম মনিকাকে কারও সঙ্গে প্রকাশ্যে দেখা গেল, যে কি না নিজের চেয়ে ১৮ বছরের তরুণ। ধারণা করা হচ্ছে, এই জুটি তাঁদের তিন মেয়েকে নিয়ে প্যারিসে এক ছাদের নিচেই আছেন।

মোনিকা বেলুচ্চির জন্ম ইতালির সিত্তা দি কাসতেল্লো, উমব্রিয়াতে। তার মা মারিয়া গিসতিনেল্লি একজন চিত্রশিল্পী ও বাবা লুইগি বেলুচ্চি একটি ট্রাকিং কম্পানির স্বত্তাধিকারী ছিলেন। ১৬ বছর বয়সে লিসিও ক্লাস্সিকোতে যোগদানের সময় বেলুচ্চি মডেলিং শুরু করেন। বেলুচ্চি তার পেশাজীবন একজন আইনজীবী হিসেবে শুরু করতে চেয়েছিলেন, এজন্য তিনি পেরুজা বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন বিষয়ে পড়াশোনা শুরু করেন।

আর বিশ্ববিদ্যালয়ের বেতনাদি পরিশোধ করার জন্য তিনি মডেলিং করতেন, কিন্তু আইন পড়াটাই ছিলো তার সবসময়ের ধ্যানজ্ঞান। তিনি অনর্গল ইংরেজি, ফরাসী ও ইতালীয় ভাষায় কথা বলতে পারেন; এবং দক্ষতার সাথে স্পেনীয় ভাষায় কথা বলতে পারেন। দ্য প্যাশন অফ দ্য খ্রাইস্ট চলচ্চিত্রের ম্যারি ম্যাগদালিন চরিত্রে অভিনয়ের সময় তিনি এই ভাষাগুলোর সাথে সাথে আরামিক ভাষায়ও সংলাপ বলেছেন।