ছবি এডিট করে হয়েছেন ঢাবির শিক্ষার্থী, বাস্তবে তিনি গৃহপরিচারিকা।

ইন্টারনেট সংগৃহীত ছবি

ফেসবুক প্রোফাইলে নাম দিয়েছেন ‘ড্যাডিস প্রিন্সেস শাপলা’! প্রোফাইল ছবিতে চেহারা দেখে বোঝার উপায় নেই ছবিটি এডিট করা, কারণ ইউক্যাম পারফেক্ট দিয়ে ছবিটি এডিট করা হয়েছে। শিক্ষাগত তথ্যে দেওয়া- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী! আর বাস্তবে তিনি একজন গৃহপরিচারিকা। ফেসবুকে অ্যাকাউন্ট খুলে গৃহকর্তাকে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্টও পাঠিয়েছেন তিনি।

এমনই এক অদ্ভুত গৃহপরিচারিকার গল্প নিয়ে শিহাব শাহীন নাটক নির্মাণ করলেন। জান্নাতুল ফেরদৌস লাবণ্যর রচনায় এর মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন সাবিলা নূর। সিএমভি’র ব্যানারে সদ্য নির্মিত এই বিশেষ নাটকটির নাম ‘রঙিলা ফানুস’।

নাটকটির গল্প প্রসঙ্গে সাবিলা জানান, এটা তার চরিত্রের শুরু। শেষটা আরও বিস্ময়কর। যেখানে দেখা যাবে, তিনি ফেসবুকের মাধ্যমে প্রেমে জড়ান ঢাকা মেডিকেল কলেজ পড়ুয়া এক যুবকের সঙ্গে! শুরু হয় নাটকের মূল জটিলতা। আর এই মেডিকেল কলেজ ছাত্রের চরিত্রে অভিনয় করেছেন জিয়াউল ফারুক অপূর্ব।

নির্মাতা শিহাব শাহীন নাটকটি প্রসঙ্গে বলেন, “মজার ছলে একটি সামাজিক বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করেছি কাজটির মাধ্যমে। অর্থাৎ এই খেটে খাওয়া মানুষগুলোরও যে আকাশ ছোঁয়ার স্বপ্ন থাকে, সেটি দেখাতে চেয়েছি। সাবিলাসহ অন্যরা অসাধারণ অভিনয় করেছে। নাটকের শেষটাতে রয়েছে বড় একটি ধাক্কা। সেটি আগাম বলছি না।”

নাটকটিতে অন্যান্য চরিত্রে আরও অভিনয় করেছেন নাজিবা বাশার, সৈয়দ জামান শাওন প্রমুখ। প্রযোজক এসকে সাহেদ আলী পাপ্পু জানান, ‘রঙিলা ফানুস’সহ এবারের ঈদ উৎসবে সিএমভি’র ব্যানারে নির্মিত হচ্ছে এক ডজন তারকাবহুল নাটক। যেগুলো ঈদ আয়োজন হিসেবে ধারাবাহিকভাবে উন্মুক্ত হবে প্রতিষ্ঠানটির ইউটিউব চ্যানেলে।