গবেষণা বলছে করোনায় পুরুষের মৃত্যুর হার বেশি

ছবিঃ সংগৃহীত

বিশ্বের ১৯৭টি দেশ ও অঞ্চলে মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়েছে ভয়াবহ করোনাভাইরাস। মঙ্গলবার অব্দি করোনায় বিশ্বের ৪ লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন মোট ২১ হাজারের বেশি মানুষ। বিশ্বজুড়ে মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসে নারীর চেয়ে পুরুষের মৃত্যুর হার বেশি। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন এবং গ্লোবাল হেলথ ফিফটি ফিফটির যৌথ গবেষণায় এমন তথ্যই উঠে এসেছে।

করোনাভাইরাস তাণ্ডবে বর্তমানে বিশ্বের অবস্থা ভয়াবহ তবে তার মধ্যে সবচেয়ে করুণ অবস্থা ইতালিতে। মহামারী করোনা ভাইরাসের বর্তমান কেন্দ্রস্থল ইতালির ন্যাশনাল হেলথ ইন্সটিটিউটের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, দেশটিতে করোনা ভাইরাসে মৃতদের মধ্যে ৬০ শতাংশ এবং আক্রান্তদের মধ্যে ৭০ শতাংশ পুরুষ। চীন এবং যুক্তরাষ্ট্র থেকে প্রাপ্ত তথ্য থেকেও এমন চিত্রই দেখা গেছে।

তবে কেন করোনায় নারীদের চেয়ে পুরুষের মৃত্যুর হার বেশি সেটির বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা এখনো স্পষ্টভাবে বের করা যায়নি। তবে চিকিৎসকরা বলছেন, শরীরে পুরনো কোনও অসুখ থাকলে তবে করোন সংক্রমণে বেশি আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা থাকে। আর এখানেই হেরে যাচ্ছে পুরুষরা। চিকিৎ সকরা বলছেন, তুলনামূলক ভাবে পুরুষের জীবনযাপন অনিয়ন্ত্রিত। অপরিমিত নেশার ক্ষেত্রেও এগিয়ে পুরুষ আবার ক্রনিক কোনও রোগও পুরুষকে বেশি আক্রমণ করে। যেমন, ১৯৯০ থেকে ২০১৭ পর্যন্ত মোট ১৯৬ টি দেশে ঘুরে করা একটি সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছে দেখা যাচ্ছে, দশ হাজার মানুষের মধ্যে সিওপিডিতে আক্রান্ত হওয়ার হার, পুরুষের ক্ষেত্রে ১১৮১, মহিলার ক্ষেত্রে ৯০৬। ১৯২৪ জন পুরুষ হৃদরোগে আক্রান্ত হলে মহিলা আক্রান্ত হন ১৪১২ জন।আক্রান্ত হন ১৪১২ জন।

গবেষণায় দেখা গেছে, চীনের প্রায় ৫০ শতাংশ পুরুষ ধূমপান করেন । এছাড়া দেশটিতে নারীদের মধ্যে মাত্র ৩ শতাংশ ধূমপান করেন। ইতালিতেও প্রায় ৭০ লাখ পুরুষ ধূমপান করেন। তবে ইতালির প্রায় ৪৫ লাখ নারীও ধূমপান করে থাকেন।

এদিকে ইতালির হেলথ ইনস্টিটিউট বলছে, করোনায় আক্রান্ত মৃতদের ৯৯ শতাংশরই অন্যান্য রোগ ছিলো। যার মধ্যে ৭৫ শতাংশই উচ্চ রক্তচাপে আক্রান্ত ছিলেন।

বিশ্বে করোনা ভাইরাসে এখন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লাখ ছাড়িয়েছে এবং ২১ হাজারেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে।