জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে ৩ হেলিকপ্টার পাঠালো বাংলাদেশ বিমানবাহিনী

Bangladesh Air Force

বাংলাদেশ বিমানবাহিনী জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশন কন্টিনজেন্ট মধ্য আফ্রিকান রিপাবলিকে প্রথমবারের মতো নাইটভিশন প্রযুক্তিসম্পন্ন ৩টি আর্মড ভার্সন এমআই-১৭১এসএইচ হেলিকপ্টার পাঠিয়েছে।

শনিবার (২০ জুন) বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, অত্যাধুনিক প্রযুক্তির হেলিকপ্টার, যন্ত্রপাতি ও ২ জন বিমানসেনা নিয়ে জাতিসংঘ কর্তৃক ভাড়াকৃত বিমান আন্তনভ-১২৪ শনিবার ভোর সাড়ে ৫টায় বাঙ্গুই মধ্য আফ্রিকান রিপাবলিকের উদ্দেশ্যে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করে। এর আগে গত ২৯ মে বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর ১২৩ সদস্যের একটি কন্টিনজেন্টকে জাতিসংঘ কর্তৃক ভাড়াকৃত বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি বিমানের মাধ্যমে মিশন অঞ্চলে মোতায়েন করা হয়েছিল। এটি ছিল ইউএন পিসকিপিং ক্যাপাবিলিটিজ রেডিনেস সিস্টেম (পিসিআরএস) কর্তৃক পরিচালিত র‌্যাপিড ডেভলপমেন্ট লেভেল’র (আরডিএল) আওতায় মোতায়েনকৃত প্রথম কন্টিনজেন্ট।

বাংলাদেশ জাতিসংঘের প্রথম সদস্য দেশ হিসেবে স্বল্পতম সময়ের মধ্যে র‌্যাপিড ডেভলপমেন্ট লেভেল’র (আরডিএল) আওতায় জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী মিশনে কন্টিনজেন্ট প্রেরণ করেছে। বাংলাদেশের এই দৃঢ় প্রচেষ্টা বিশ্ব শান্তি ও নিরাপত্তা রক্ষায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে।

আরও বলা হয়, বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলে বিবদমান সংঘাত নিরসনে বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর সদস্যরা অত্যন্ত দক্ষতা, পেশাদারিত্ব ও আন্তরিকতার সঙ্গে জাতিসংঘের বিভিন্ন শান্তিরক্ষা মিশনে দায়িত্ব পালন করে আসছে। বিশ্বব্যাপী চলমান করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব সত্ত্বেও বাংলাদেশ বিমানবাহিনী মধ্য আফ্রিকান রিপাবলিক-এ কন্টিনজেন্ট পাঠিয়েছিল।

তারই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ বিমানবাহিনী নতুন করে ৩টি অত্যাধুনিক নাইটভিশন প্রযুক্তিসম্পন্ন এমআই-১৭১এসএইচ হেলিকপ্টার ও যন্ত্রপাতি মধ্য আফ্রিকান রিপাবলিকে পাঠায়। এ হেলিকপ্টারগুলো মধ্য আফ্রিকান রিপাবলিকে অবস্থিত বাংলাদেশ মিডিয়াম আর্মড মিলিটারি হেলিকপ্টার ইউনিটে যুক্ত হবে। উন্নত প্রযুক্তি ও দক্ষ জনশক্তি নিয়ে এসব হেলিকপ্টার ইউনিট মধ্য আফ্রিকান রিপাবলিকের সংকট নিরসনের জন্য MINUSMA Mandate-এর সমর্থনে আরও কার্যকর ভূমিকা রাখবে বলে আশা করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল মাসিহুজ্জামান সেরনিয়াবাত গত ২৮ মে মধ্য আফ্রিকান রিপাবলিকগামী বিমানবাহিনী কন্টিনজেন্ট সদস্যদের প্রয়োজনীয় ব্রিফিং দেন ও মিশনের সাফল্য কামনায় বিশেষ মোনাজাতে অংশ নেন। এ সময় তিনি জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে যাওয়া সদস্যদের সততা, পেশাদারিত্ব ও আন্তরিকতার সঙ্গে অর্পিত দায়িত্ব পালন করে বাংলাদেশ বিমান বাহিনী তথা দেশের জন্য সুনাম বয়ে আনার আহ্বান জানান।