ট্রাম্প চালু করলেন ‘যোগাযোগের’ নতুন ওয়েবসাইট

ট্রাম্পের নিজস্ব সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প নিজস্ব একটি সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম চালু করবেন দীর্ঘদিন ধরেই গুঞ্জন চলছিল। শুধু ঘোষণাতেই আটকে থাকেননি তিনি, তা করেও দেখিয়েছেন। অবশেষে তিনি গত মঙ্গলবার নিজস্ব প্লাটফর্ম চালু করলেন। কিন্তু দেখা যাচ্ছে এটি আসলে ওয়ার্ডপ্রেসের একটি ব্লগ।

অনেকটা টুইটারের আদলে তৈরি করা হয়েছে নতুন এ ব্লগটি, তবে এখানে ট্রাম্পের ধারাভাষ্য যুক্ত করা হচ্ছে। ইমেইল ও ফোন নম্বরের মাধ্যমে যে কেউ এ ব্লগের পোস্ট এলার্ট দিয়ে রাখতে পারবেন। এর মাধ্যমে ট্রাম্প কোন পোস্ট করলে তখন ওই ব্যক্তি তা পড়তে পারবেন। ট্রাম্পের পোস্টে লাইক দেয়ার পাশাপাশি সেগুলো ফেসবুক ও টুইটারেও শেয়ার করতে পারবেন।

গত মঙ্গলবার টুইটারের এক মুখপাত্র দ্য ভার্জকে জানান, যতক্ষণ পর্যন্ত কোন ব্যবহারকারীর পোস্ট টুইটারের নীতিমালা লঙ্ঘন না করছে ততক্ষণ পর্যন্ত অন্য প্লাটফর্মের কনটেন্ট শেয়ার করতে পারবে। এ বিষয়ে এখনো ফেসবুকের তরফ থেকে কোন মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

প্লাটফর্মটি মঙ্গলবার উন্মোচিত হলেও তাতে গত ২৪ মার্চ থেকে পোস্ট পাওয়া যাচ্ছে। সর্বশেষ একটি ভিডিও পোস্টে ট্রাম্প বলেন, এখানে স্বাধীনভাবে ও নিরাপদে কথা বলা যাবে, একেবারে সরাসরি ডোনাল্ড জে ট্রাম্পের ডেস্ক থেকে।

গত জানুয়ারির শুরুতে ডানপন্থী সমর্থক কর্তৃক ইউএস ক্যাপিটলে হামলার পর ট্রাম্পের ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম এবং তার প্রিয় প্লাটফর্ম টুইটার থেকে বহিষ্কার করা হয়। ফেসবুক কর্তৃপক্ষ যদি ট্রাম্পের পক্ষে রায় দেয় তাহলে এক সপ্তাহের মতো তার ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট সচল হবে।

ইউটিউব বলছে, সহিংসতার ঝুঁকি প্রশমিত হলে ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট পুনরায় সচল করা হতে পারে। এদিকে টুইটার বলছে, ৮ কোটি ৮০ লাখ ফলোয়ারের ট্রাম্পের টুইটার অ্যাকাউন্টটি স্থায়ীভাবে বন্ধ করা হয়েছে।