কক্সবাজারে গুলি ও ছুরিকাঘাতে যুবককে হত্যা

ইন্টারনেট সংগৃহীত ছবি

গতকাল রবিবার রাত সাড়ে ৮ টার দিকে কক্সবাজারের টেকনাফের হ্নীলায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গুলি ও ছুরিকাঘাত করে এক যুবককে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। হত্যার পর মরদেহটি গুমের চেষ্টা করা হলেও লোকজনের সহযোগিতায় পাহাড়ি ঘোনা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে নিয়ে আসে পুলিশ। নিহত যুবকের নাম ঈমান হোছন (১৮)। তিনি উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের পশ্চিম লেদার নুরালী পাড়া এলাকার আব্দুর রহিমের ছেলে।

এতে নিহতের বড় ভাই জানান, গতকাল রবিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে ঈমান হোছন মসজিদ থেকে এশার নামাজ আদায় করে বাড়ি ফিরছিলেন। এ সময় আকস্মিকভাবে ১০-১৫ জন দুর্বৃত্ত তাকে গুলি ও এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে রক্তাক্ত অবস্থায় টেনেহিছড়ে পাহাড়ের দিকে নিয়ে যায়। খবর পেয়ে তার বাবা স্থানীয় লোকজন নিয়ে পাহাড়ে গিয়ে জাফরের ঝিরি এলাকা হতে মৃত অবস্থায় ছেলে ঈমান হোছনকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে এবং পুলিশকে খবর দেয়। এ ঘটনার খবর পেয়ে টেকনাফ মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) যায়েদ হাসান পুলিশ ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে মৃতদেহটি উদ্ধার করে। পরে মরদেহের সুরতহাল তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়।

এ প্রসঙ্গে টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃতদেহটি উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করেছে। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ দায়ের করা হলে প্রয়োজনীয় আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য যে, গত বছর এপ্রিলের শেষের দিকে দুর্বৃত্তরা নিহতের বড় ভাই সাদ্দামকে অপহরণ করে পাহাড়ে নিয়ে যায় এবং মুক্তিপণ আদায় করে। পরে এলাকার লোকজন সংঘবদ্ধ হয়ে পাহাড়ে গেলে তাকে ফেলে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা।