অবসর নেওয়ার কারণ জানালেন যুবরাজ সিং

Yuvraj Singh

যুবরাজের ইচ্ছা ছিল জাতীয় দলে থাকা অবস্থায় মাঠ থেকে বিদায় নেবেন। কিন্তু সেই সৌভাগ্য সবার হয় না। ভারতের বিশ্বকাপজয়ী তারকা যুবরাজ সিংয়েরও হয়নি। গত ওয়ানডে বিশ্বকাপে ভারত অস্ট্রেলিয়াকে হারানোর পরের দিনই অবসর ঘোষণা করে তিনি ক্রিকেটপ্রেমীদের মন ভেঙে দিয়েছিলেন। কিন্তু কেন ওই মুহূর্তে ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়েছিলেন যুবরাজ? সম্প্রতি এক সাক্ষাতকারে সেই কারণ জানিয়েছেন তিনি।

যুবরাজের ভাষায়, ‘জীবন যখন গতিসর্বস্ব হয়ে ওঠে, তখন অনেক কিছুই বোঝা যায় না। আমি ২-৩ মাস বাড়িতে বসে ছিলাম। তখন আমার মনে হয়েছিল ক্রিকেট আমাকে আর মানসিক দিক থেকে সাহায্য করছে না। আমার কেবলই মনে হতো, কবে অবসর নেব। অবসর নেওয়া কি সত্যিই উচিত? তা হলে কি আমি অবসর নিয়েই ফেলব নাকি আরও একটা মৌসুম খেলব? এরপর ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়ে জীবনকে এগিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেই।’

ভারতের জাতীয় দলে তখন আর সুযোগ পেতেন না যুবরাজ। তাই তার জন্য সিদ্ধান্ত নেওয়াটা সহজ হয়েছিল। এখন তিনি আর ক্রিকেটকে মিস করেন না।

কারণ হিসেবে যুবরাজ বলেছেন, অনেক বছর ক্রিকেট তিনি খেলেছেন। ক্রিকেট খেলার সময় ভালো করে রাতে ঘুমোতে পারতেন না। এখন রাতে তার ভালো ঘুম হয়। ক্রিকেটের জন্যই অসংখ্য মানুষের ভালোবাসা পেয়েছেন। ভক্তরা তাকে ভালোবাসে, শ্রদ্ধা করে। সেই অনুভূতি বুকে নিয়েই তিনি ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়েছেন।