দাম্পত্য কলহে স্বামীর অন্ডকোষে স্ত্রীর আঘাত স্বামী নিহত

প্রতীকী ছবি

দাম্পত্য কলহের জের ধরে টাঙ্গাইলের সখীপুরে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ধস্তাধস্তিতে স্বামী নিহত হয়েছেন। গতকাল সোমবার রাতে উপজেলার ইছাদিঘী গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

নিহত ব্যক্তির নাম কিতাব আলী (৪০)। তিনি সখীপুর উপজেলার ইছাদিঘী গ্রামের মৃত কেরামত আলীর ছেলে। ভাঙারির ব্যবসা করতেন নিহত কিতাব আলী। এ ঘটনায় পুলিশ কিতাবের তৃতীয় স্ত্রী হামিদা আক্তারকে (২৫) আটক করেছে। চার বছরের এক ছেলেসন্তান রয়েছে তাঁদের ঘরে। আগের দুই স্ত্রীর সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদ হয়েছে কিতাব আলীর।

উপজেলার গজারিয়া ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আবুল কালাম আজাদ জানান, গতকাল সোমবার বিকেলে কিতাব আলীর সঙ্গে তাঁর স্ত্রী হামিদা আক্তারের ঝগড়া শুরু হয়। একপর্যায়ে তুমুল ঝগড়ায় জড়িয়ে পড়েন তাঁরা। উপর্যুপরি একজন অপরজনকে কামড় দিতে থাকেন।

ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে স্ত্রী তাঁর স্বামীর অণ্ডকোষে আঘাত করলে স্বামী এ সময় অজ্ঞান হয়ে পড়েন। পরে প্রতিবেশীরা আহত কিতাব আলীকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে সন্ধ্যায় গ্রামবাসী বিষয়টি পুলিশকে জানালে রাত সাড়ে ৯টায় লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

সখীপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) এ এইচ এম লুৎফুল কবির বলেন, “নিহত কিতাব আলীর স্ত্রী হামিদা আক্তারকে আটক করে থানায় আনা হয়েছে। লাশের বিভিন্ন স্থানে কামড়ের চিহ্ন রয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।”