ঢামেক ও শিশু হাসপাতালে ১৪টি ভেন্টিলেটর দিলো বিকাশ

bKash

ঢাকা শিশু হাসপাতাল ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৪টি হাই-ফ্লো অক্সিজেন ভেন্টিলেটর এবং বারডেমের সহযোগী ডায়াবেটিক হাসপাতালে (বিআইএইচএস জেনারেল হাসপাতাল) অক্সিজেন প্ল্যান্ট নির্মাণ করে দিয়েছে মোবাইল আর্থিক সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান বিকাশ।

করোনা রোগীদের চিকিৎসাসহ সাধারণ রোগীদের চিকিৎসা কার্যক্রমে হাসপাতালগুলোকে প্রাতিষ্ঠানিকভাবে আরও সক্ষম করে তুলতে বিকাশ তার চলমান উদ্যোগের অংশ হিসেবে এই সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম এবং ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিন প্রতিষ্ঠানটির পক্ষে ভেন্টিলেটরগুলো গ্রহণ করেন।

ঢাকা শিশু হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ এবং পরিচালক অধ্যাপক ডা. সৈয়দ শাফি আহমেদ প্রতিষ্ঠানটির পক্ষে ভেন্টিলেটরগুলো গ্রহণ করেন।

ডায়াবেটিক অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ-এর প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক ডা. এ কে আজাদ খান বিকাশের সহায়তায় ডায়াবেটিক হাসপাতালে নির্মিত অক্সিজেন প্ল্যান্টটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

বিকাশের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার কামাল কাদীর এবং চিফ এক্সটারনাল অ্যান্ড কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্স অফিসার মেজর জেনারেল শেখ মো. মনিরুল ইসলাম (অব.) ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও ঢাকা শিশু হাসপাতালে ভেন্টিলেটরগুলো হস্তান্তর করেন এবং ডায়াবেটিক হাসপাতালে অক্সিজেন প্ল্যান্টের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে কোভিড মহামারির দুর্যোগের সময় দেশের মানুষের পাশে দাঁড়াতে আলিবাবা ফাউন্ডেশন ও জ্যাকমা ফাউন্ডেশনের দেওয়া ৫০টি ভেন্টিলেটরসহ ছয় লক্ষাধিক চিকিৎসা সামগ্রী বিকাশের ব্যবস্থাপনায় প্রধানমন্ত্রীর তহবিলে হস্তান্তর করা হয়।

এছাড়া সেনাকল্যাণ সংস্থার মাধ্যমে পাঁচ হাজার পরিবারের খাদ্য সহায়তা নিশ্চিত করে বিকাশ। একই সময়ে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের হাসপাতাল নির্মাণেও সহায়তা করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

শিগগিরই বিকাশের এই চলমান উদ্যোগে আরো কিছু হাসপাতাল ও প্রতিষ্ঠানে চিকিৎসা সহায়তা সামগ্রী দেওয়া হবে। মানুষের স্বাভাবিক জীবন নিশ্চিত করতে নিরবচ্ছিন্ন আর্থিক সেবার পাশাপাশি সামাজিক দায়বদ্ধতার (সিএসআর) অংশ হিসেবে দেশের স্বাস্থ্যসেবায় প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতা বাড়াতে বিকাশ তার উদ্যোগ অব্যাহত রেখেছে।