কার্টুনিস্ট কিশোরের শ্রবণশক্তি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, লোপ পেয়েছে দৃষ্টিশক্তিও

Kishore

বাংলাদেশে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে প্রায় এক বছর আগে আটক হওয়া কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোরের ডান কানের শ্রবণশক্তি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন কিশোরের ওই কানে অস্ত্রোপচার করাতে হবে। না করলে তাকে কৃত্রিম যন্ত্র ব্যবহার করে কানে শুনতে হবে। এ ছাড়া তার চোখের ছানির অস্ত্রোপচারও জরুরি হয়ে পড়েছে।

কিশোরের চিকিৎসার দায়িত্বে থাকা মেডিক্যাল টিম তার স্বাস্থ্যগত বিভিন্ন পরীক্ষার প্রতিবেদন গতকাল রবিবার বিশ্লেষণ করে। এ ছাড়া কিশোরের ডায়াবেটিস অনিয়ন্ত্রিত পর্যায়ে অর্থাৎ ৮-১২ মাত্রায় রয়েছে। সেই সঙ্গে তার রক্তচাপও ওঠানামা করছে বলে শনাক্ত হয়েছে।

কিশোর যে হাসপাতালে আছেন সেখানকার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন চিকিৎসক গণমাধ্যমকে জানান, কিশোর যে অবস্থায় হাসপাতালে এসেছিলেন তখনকার চেয়ে এখন (গতকাল সন্ধ্যার পর) অনেকটা ভালো। কিন্তু এখনো তিনি বিপর্যস্ত মানসিক অবস্থা কাটিয়ে উঠতে পারছেন না, যা তার রক্তচাপ ও ডায়াবেটিস স্বাভাবিক পর্যায়ে আসতে বাধাগ্রস্ত করছে। সব সময় ভয়ের মতো এক ধরনের ঘোরের মধ্যে কাটছে তার। কিশোরের চোখের ছানির কারণে স্বাভাবিক দৃষ্টিশক্তি লোপ পেয়েছে। ফলে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে ছানি অপসারণ করা জরুরি। আর কানের অস্ত্রোপচারও করা দরকার।

কিশোরের ভাই আহসান কবির জানান, ‘চিকিৎসকরা আমাদের কাছে কিশোরের ডান কানের অস্ত্রোপচারের বিষয়ে মতামত চেয়েছেন। আমরা সিদ্ধান্ত জানালে দু-এক দিনের মধ্যেই হয়তো তারা অস্ত্রোপচার করতে পারবেন। আর না করলে হিয়ারিং এইড ব্যবহার করতে হবে। এ বিষয়ে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়ে চিকিৎসকদের জানাব। এ ছাড়া চোখের ছানির অস্ত্রোপচারটাও করাতে হবে বলে আমাদের জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। তবে পায়ের ব্যথা কিছুটা কমছে। আমরা সবচেয়ে বেশি চাই আমার ভাইয়ের চিকিৎসা, তাকে মেন্টাল ট্রমা থেকে বের করে আনা এবং যতটা সম্ভব একটা স্বস্তির পরিবেশ ফিরিয়ে দেওয়া।

প্রসঙ্গত, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলায় প্রায় ১০ মাস কারাগারে আটক থাকার পর সম্প্রতি জামিনে মুক্তি পান কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোর।