জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সংঘর্ষ: রিমান্ডে ছাত্রদলের ১৩ নেতাকর্মী

Bangladesh Jatiotabadi Chatra Dal

রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সমাবেশে পুলিশ- ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় গ্রেফতার জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের ১৩ নেতাকর্মীকে ৫ দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছেন আদালত।

আজ সোমবার (০১ মার্চ) ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আসাদুজ্জামান নূর এ আদেশ দেন।

আসামিরা হলেন- মঞ্জুরুল আল রিয়াদ, আতাউর রহমান, মাসুদ রানা, শফিকুল ইসলাম, শাহীরাজ, আহসান হাবীব রাজু, কবির হোসেন, মনোয়ার ইসলাম, আরিফুল হক, আনিসুর রহমান, আবু হায়াৎ মো. জুলফিকার, আতিক মোরশেদ ও রমজান।

এদিন বিকেলে তাদের আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শাহবাগ থানার এসআই মো. আব্দুল্লাহ। আসামিপক্ষে ঢাকা বারের নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক হযরত আলীসহ কয়েকজন আইনজীবী রিমান্ড বাতিলের আবেদন করেন। শুনানি শেষে বিচারক তাদের দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দিনগত গভীর রাতে পুলিশ বাদী হয়ে শাহবাগ থানায় এই মামলাটি দায়ের করে। দলটির ৪৮ জন নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়।

মামলায় এজাহার নামীয় ৪৭ জন নেতাকর্মী ও অজ্ঞাতনামা ২০০-২৫০ জনকে আসামি করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত সংঘর্ষের ঘটনায় ১৩ জনকে গ্রেফতার দেখিয়েছে পুলিশ।

মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে (পুলিশ অ্যাসল্ট) হত্যাচেষ্টা ও হামলা-ভাঙচুর চালানো।

এর আগে, রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ‘বীর উত্তম’ খেতাব বাতিল করার সিদ্ধান্ত এবং কারাগারে লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর ঘটনার প্রতিবাদে ছাত্রদল আয়োজিত সমাবেশ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। নেতাকর্মীরা প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান নেয়। এতে পুলিশ সদস্যরা বাধা দিলে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়।

ঘটনাস্থল প্রেসক্লাব ও ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল এলাকা থেকে ৭-৮ জন ছাত্রদল নেতাকর্মীকে আটক করে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়। এরপর রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি থেকে ছাত্রদলের আরও তিন নেতাকর্মীকে আটক করে গোয়েন্দা রমনা বিভাগের একটি টিম।