মানবতাবিরোধী অপরাধ: গফরগাঁওয়ের ৩ জনের জাবজ্জীবন

international crimes tribunal

একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ের ৯ আসামির মধ্যে ৩ জনের জাবজ্জীবন, ৫ জনের ২০ বছর, এবং একজনকে খালাস দিয়েছেন আদালত। আজ বৃহস্পতিবার (১১ ফেব্রয়ারি) এ রায় ঘোষণা করে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।

এর আগে, মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ এ দিন নির্ধারণ করেন। এর আগে গত বছরের ২৬ জানুয়ারি মামলাটি রায়ের অপেক্ষায় রেখেছিলেন ট্রাইব্যুনাল। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন প্রসিকিউটর সুলতান মাহমুদ সীমন, জাহিদ ইমাম ও তাপস কান্তি বল।

আসামিপক্ষে ছিলেন আব্দুস সাত্তার পালোয়ান। এ মামলায় মোট আসামি ছিলেন ১১ জন। তাদের বিরুদ্ধে ২০১৮ সালের ৪ মার্চ অভিযোগ গঠন করেন আদালত। পরে গ্রেফতার একজন ও পলাতক একজন মৃত্যুবরণ করেন।

গ্রেফতার রয়েছেন মো. খলিলুর রহমান মীর, মো. শামসুজ্জামান ওরফে আবুল কালাম, মো. আব্দুল্লাহ, মো. আব্দুল মালেক আকন্দ ওরফে আবুল হোসেন ওরফে আবুল মেম্বার, মো. রইছ উদ্দিন আজাদী ওরফে আক্কেল আলী ও আব্দুল লতিফ। আর এএফএম ফয়জুল্লাহ, আব্দুর রাজ্জাক মণ্ডল, সিরাজুল ইসলাম তোতা, আলিম উদ্দিন খান ও নুরুল আমিন শাহজাহান।

এর মধ্যে বিচার চলাকালীন মো. আব্দুল মালেক আকন্দ ওরফে আবুল হোসেন ওরফে আবুল মেম্বার ও পলাতক থাকাবস্থায় নুরুল আমিন শাজাহান মারা যান। ২০১৭ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি তাদের বিরুদ্ধে তদন্তের চূড়ান্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থা। আসামিদের বিরুদ্ধে হত্যা, লুণ্ঠন, অগ্নিসংযোগ, অপহরণ, আটক, নির্যাতন ও মুক্তিপণ আদায়ের চারটি মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ আনা হয়েছে।